টনসিল দূর করার প্রাকৃতিক উপায়।

অনেক সময় গলায় খুব ব্যথা করে। তখন ঢোক গিলতে গেলেও খুব কষ্ট হয়। এই ব্যথা সাধারণত টনসিলে সংক্রমণের কারণে হয়ে থাকে। টনসিল ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাল সংক্রমণের কারণে হতে পারে।

টনসিল হলে গলা ফোলা, গলা ব্যথা, খেতে গেলে ব্যথা, জ্বর, কানের ব্যথা হয়। সর্দি-কাশির জন্য দায়ী ভাইরাসগুলোই টনসিলের এই সংক্রামণের জন্যেও দায়ী।

টনসিল কি?

জিভের পিছনে গলার দেয়ালের দুপাশে গোলাকার পিণ্ডের মতো যে জিনিসটি দেখা যায়, সেটাই হলো টনসিল। এটি দেখতে মাংসপিণ্ডের মতো মনে হলেও এটি মূলত এক ধরণের টিস্যু বা কোষ। টনসিল বলতে আমরা সচরাচর যা বুঝি, তা কিন্তু আসলে টনসিলাইটিস।

আসুন জেনে নেই টনসিল দূর করার প্রাকৃতিক উপায় সম্পর্কে-

লবণ পানি:

লবণ পানি গার্গল এবং মুখ ধুয়ে ফেলা টনসিলের কারণে হওয়া গলা ব্যথা প্রশমিত করতে পারে। এটি প্রদাহ হ্রাস করতে পারে এবং সংক্রমণের চিকিৎসা করতেও সহায়তা করতে পারে। শুধু তাই নয়, উষ্ণ লবণ পানি দিয়ে কুলি করলে গলায় ব্যাকটেরিয়ার সংক্রামণের আশঙ্কাও দূর করে দেয়।

হলুদ:

টনসিল দূর করার জন্য ঘরোয়া উপাদান হিসাবে দুধ হলুদ খুবই কার্যকরী। হলুদ এর শক্তিশালী অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং এন্টিসেপটিক গুণগুলির কারণে, টনসিলের সংক্রমণ থেকে লড়াই করতে পারে। এক কাপ গরম দুধে বা গরম পানিতে এক চিমটি হলুদ, লবণ ও ১ চিমটি গোলমরিচ মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি দিয়ে কুলকুচি করুন। উপকার পাবেন।

মধু দিয়ে গরম চা:

চায়ের মতো উষ্ণ পানীয় টনসিলের প্রদাহ হ্রাস করতে সহায়তা করে। চাতে মধু যোগ করার ফলে এর অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল বৈশিষ্ট্য টনসিলের প্রদাহজনিত সংক্রমণের চিকিৎসা করতে সহায়তা করতে পারে। এক কাপ গরম পানিতে আধা চামচ চা পাতা আর এক চামচ মধু দিয়ে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। এবার ধীরে ধীরে চুমুক দিয়ে ওই চা পান করুন।

আদা চা:

দেড় কাপ পানিতে এক চামচ আদা কুচি আর আন্দাজ মতো চা দিয়ে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। দিনে অন্তত ২-৩ বার এটি পান করুন। আদার অ্যান্টি-ব্যকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান সংক্রামণ ছাড়াতে বাধা দেয়। এর সঙ্গে সঙ্গে গলার ব্যথা কমিয়ে দিতেও এটি খুবই কার্যকরী।

যষ্টিমধু:

যষ্টিমধু প্রাকৃতিক প্রদাহ-প্রদাহজনক বৈশিষ্ট্যযুক্ত। এর শক্তিশালী অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যের জন্য টনসিল এবং গলায় অস্বস্তি এবং ফোলাভাব উভয়কে প্রশমিত করে। তবে বাচ্চাদের ক্ষেত্রে না দেওয়াই ভালো।

লেবুর রস:

২০০ মিলিগ্রাম উষ্ণ গরম পানিতে এক চামচ লেবুর রস, এক চামচ মধু, আধা চামচ নুন ভালো করে মিশিয়ে নিন। যত দিন গলা ব্যথা ভালো না হয়, তত দিন পর্যন্ত এই মিশ্রণটি সেবন করুন। টনসিলের সম্যসা দূর করার জন্য এটি খুবই কার্যকরী।

তুলসী:

তুলসীর অ্যান্টিভাইরাল এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যের কারণে টনসিলের ব্যথা দূর করার জন্য কার্যকর ঘরোয়া প্রতিকার। টনসিলের ফোলাভাব এবং ব্যথা হ্রাস করার পাশাপাশি নিরাময় করতে সহায়তা করে তুলসী পাতা। ১০ থেকে ১২ টি তুলসী পাতা এক থেকে দেড় কাপ পানিতে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে নিন। এবার এতে ১ চা চামচ লেবুর রস, ১ চা চামচ মধু ও সামান্য একটু গোলমরিচ গুঁড়ো যোগ করুন। যত দিন গলা ব্যথা বা টনসিল ভালো না হয়, তত দিন পর্যন্ত এই মিশ্রণটি সেবন করুন।

যদি ২-৩ দিনেও টনসিল না কমে তাহলে দেরি না করে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

রেফারেন্স:
Share