চুলের যত্নে লেবুর ব্যবহার।

দিন দিন আমাদের চারপাশের পরিবেশ দূষিত হয়ে উঠছে। বাইরে রাস্তাঘাটে বেরোলে এতো ধুলো, ময়লা, ধোঁয়া তার উপর খাদ্যে ভেজাল। প্রতিদিনকার কাজের চাপ, হতাশা, দুশ্চিন্তা সব কিছুই আমাদের চুলের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলছে। এছাড়া অজ্ঞতা, সঠিক পুষ্টির অভাব, জেনেটিক্স সমস্যা ইত্যাদি তো আছেই। মানুষের সৌন্দর্যের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হলো চুল। অনেক মানুষ চুলকে তাদের শ্রেষ্ঠ সৌন্দর্য সম্পদ হিসাবে বিবেচনা করে। সুন্দর চুল সবারই কাম্য। সুন্দর চুল সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে তোলে।

চুলের যত্নে আমরা কত কিছুই না করি। স্পেশাল শ্যাম্পু, কন্ডিশনার, প্রোটিন ট্রিটমেন্ট, কেরাটিন ট্রিটমেন্ট আরও কত কী! অনেক সময় আমরা পার্লারে গিয়েও চুলের ট্রিটমেন্ট করে থাকি। কিন্তু আমরা কি জানি, আমাদের অতি পরিচিত এমন একটা জিনিস আছে যেটা দিয়ে চুলের অনেকগুলো সমস্যার সমাধান করা যায়? সেটা আর কিছুই নয় সেটা লেবু। চুলের যত্নে লেবু অসাধারণ। লেবুতে রয়েছে বেশ কিছু পুষ্টিকর উপাদান যেমন, সাইট্রিক এসিড, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও ভিটামিন “সি” এগুলো সবই আমাদের চুলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। দামি দামি প্রসাধনী না মেখে আসুন জেনে নিন প্রাকৃতিক উপায়ে বা দামে সস্তা ঘরোয়া উপকরণ লেবু ব্যবহার করে কীভাবে আমাদের চুলের যত্ন নিতে পারি–

খুশকি দূর করতে:

অনেকেই এমন আছেন যে সারা বছর ধরে খুশকির সমস্যায় ভুগছেন। আবার কারো কারো শীতকালে খুশকির সমস্যা দেখা দেয়। যেটাই হোক না কেন, ঘরে লেবু থাকলে খুশকি নিয়ে আপনাকে আর ভাবতে হবে না। লেবুর রস খুশকি দূর করতে সবচেয়ে কার্যকর উপাদান। খুশকি দূর করতে লেবুর তিনটি ব্যাবহার দেওয়া হলো –

  • দেড় টেবিল চামচ মেথি ভিজিয়ে নিয়ে ভালো করে বেটে নিন। এর সাথে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস মেশান। মাথার তালুতে লাগিয়ে রাখুন ৩০মিনিট। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনি ১০ দিন পরপর করতে পারেন। খুশকির সমস্যা থাকবে না আশা করি।
  • ২ টেবিল চামচ লেবুর রস আর ৪ টেবিল চামচ নারকেলের তেল ভালো করে মেশান। গোসল করার ৩০ মিনিট আগে মাথার তালুতে এটা খুব ভাল করে লাগিয়ে নিন। যেন পুরো স্ক্যাল্প ভালোভাবে ভিজে যায়। বিশ মিনিট রেখে এবার শ্যাম্পু করে ফেলুন। দেখবেন, একবার ব্যবহারেই খুশকি দূর হয়ে যাবে।
  • আধা কাপ গরম পানিতে দুই টেবিল চামচ চা পাতা জ্বাল দিয়ে বেশ ঘন কড়া একটা লিকার তৈরি করে নিন। এরপরে একটু ঠাণ্ডা করে এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। বিশ মিনিট পরে শুধু ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। খুব ভালো এবং দ্রুত ফল পেতে নিয়ম করে সপ্তাহে দুইবার এটি লাগান।

হেয়ার গ্রোথ বা চুলের বৃদ্ধি:

চুল একটু লম্বা হবে এটা সবার স্বপ্ন। এই স্বপ্ন পূরণ করতে পারে লেবু এটা কি আপনি জানতেন? এটি সাইট্রিক অ্যাসিড, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন “সি”, পেকটিন এবং ফ্ল্যাভোনয়েড সমৃদ্ধ। এগুলি প্রতিটি চুল বৃদ্ধির জন্য উপকারী।ভিটামিন “সি” কোলাজেনের উৎপাদন উন্নত করে যা ফলশ্রুতিতে চুল বাড়ায়। লেবুতে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড চুলের ফলিকলগুলি আলগা হতে বাধা দেয়, ফলে চুল পড়া কমে যায়। হেয়ার গ্রোথ বা চুলের বৃদ্ধিতে লেবুর চারটি ব্যাবহার দেওয়া হলো –

  • নারকেলের তেলর সাথে লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে মাথার তালুতে ম্যাসাজ করে নিন। ৩০মিনিট রাখার পর শ্যাপু করে ফেলুন। এটা চাইলে সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন করতে পারেন।
  • পাঁচ টেবিল চামচ মেহেদি পাতা বাটার সাথে একটি ডিম মিশিয়ে নিন। এরপরে অর্ধেকটা লেবুর রস মেশান। মাথার তালু থেকে শুরু করে পুরো চুলে ভাল করে লাগান। শুকাতে প্রায় ১ ঘন্টা সময় লাগবে। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি মাসে একবার লাগাবেন।
  • অ্যালোভেরা চুলের ও মাথার ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি করে এবং লেবুর অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য মাথার ত্বকে সংক্রমণ মুক্ত রাখতে সহায়তা করে। ১ টেবিল চামচ লেবুর রস ২ টেবিল চামচ খাঁটি অ্যালোভেরা জেল দুটো এক সাথে ভালো করে মেশান। এই মিশ্রণটি ভালো করে চুলে লাগিয়ে ৩০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। তারপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
  • এক টেবিল চামচ লেবুর রস এবং এক টেবিল চামচ ডাবের পানি মিশিয়ে নিয়ে, শুধু মাথার তালুতে লাগান। বিশ মিনিট রেখে সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে একবার লাগানো যেতে পারে।

সিল্কি চুলের জন্য:

আপনার চুলের রঙ যাই হোক না কেন, লেবুর রস চুল সিল্কি করে তুলতে পারে। সিল্কি চুলের জন্য লেবুর তিনটি ব্যাবহার দেওয়া হলো –

  • একটি লেবু রস করে ১ গ্লাস পানিতে মিশিয়ে সেটাতে চুল ভালো করে ভিজিয়ে নিন। এটা শ্যাম্পু করার পরেও করতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন, চুল পুরোপুরি শুকানোর আগে কিন্তু রোদে বের হওয়া যাবে না।
  • নারকেল তেল ও লেবুর রস একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নরমালি চুলে তেল যেভাবে লাগান, সেভাবেই লাগিয়ে নিন। এরপরে মিনিট ১৫ রেখে দিন তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন।
  • ২ টেবিল চামচ লেবুর রস, ২ টেবিল চামচ মধু এবং আধা কাপ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিয়ে পুরো চুলে ভালো করে লাগিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপরে ভালো করে শ্যাম্পু করে নিন। সিল্কি স্মুদ চুলের জন্যে এর চেয়ে ভালো হেয়ার প্যাক খুব কমই আছে।

লেবুর সতর্কতাঃ

  • লেবুর রস অম্লীয় তাই অতিরিক্ত ব্যবহার করলে চুল শুকনো এবং ভেঙ্গে যেতে পারে। এ কারনে লেবুর রস পরিমিত পরিমানে ব্যবহার করুন।
  • ক্ষত বা কাট উপর প্রয়োগ করবেন না।
  • লেবু একটি ব্লিচিং এজেন্ট তাই রস করে ১০ মিনিটের বেশি সময় রাখবেন না।
Share