আমড়ার স্বাস্থ্য সুবিধা

আমড়া কি?

আমড়া হল উপবৃত্তাকার ছোট আম জাতীয় সুস্বাদু রসালো ফল। এটি আফ্রিকা, ভারত, বাংলাদেশ, শ্রীলংকা, বাহামা, ইন্দোনেশিয়া, এবং অন্যান্য ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের অংশগুলিতে পাওয়া যায় । আমড়া গ্রীষ্মমন্ডলীয় দেশের আভাকাডোর মতো স্বাদ যুক্ত। আমড়ার জনপ্ৰিয়তা মিষ্টি এবং টক স্বাদের জন্য । আমড়া spondias genus এর অন্তর্গত।

কেন আমড়া বুড়া হওয়া বিলম্বিত করার জন্য ভাল?

ফ্রি রাডিক্যালস মানুষের বয়স বেড়ে যাওয়া এবং রোগ এর উৎস হিসাবে কাজ করে । আমড়ার মধ্যে প্রচুর পরিমানে প্রযোজনীয় মৌলিক ভিটামিন এবং পুষ্টিকর উপাদান উপস্থিত রয়েছে যা ফ্রি রাডিক্যালস বেড়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে। যেহেতু ফ্রি রেডিক্যাল বেড়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে তাই মানুষের বুড়া হওয়া বিলম্বিত করে.

আমড়ার পুষ্টিকর উপাদান এবং এর উপকারিতা নীচে দেয়া হলো:

হজমের জন্য ভাল

আমড়া ফাইবার(আঁশ )এর চমৎকার উৎস । এই ফল একটি অনন্য মিষ্টি এবং টক স্বাদ যুক্ত । আমড়াতে প্রচুর আঁশ পাওয়া যায় এবং এটি কম ক্যালোরি যুক্ত ফল। আমড়াতে আঁশ বেশি থাকার কারণে আমাদের হজম শক্তি বৃদ্ধি করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে । প্রতিদিনের খাবারের সাথে আমড়া রাখলে এটি ডায়াবেটিকস ও হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকাংশে কমিয়ে দিতে পারে।

হিমোগ্লোবিন উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়

আমড়াতে প্রচূর পরিমানে আয়রন বিদ্যমান। আয়রন একটি খনিজ উপাদান যেটা আমাদের শরীরে অক্সিজেন পরিবহন ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। আয়রন-অভাব( অ্যানিমিয়া) বর্তমান বিশ্বের বেশিরভাগ উন্নননশীল দেশের বড় সমস্যা।100 গ্রাম আমড়াতে 3.2 মিলিগ্রাম আইরন রয়েছে।যদি আমরা দৈনিক 100 গ্রাম আমড়া খাই তবে আমাদের প্রয়োজনীয় দৈনিক চাহিদার 18 শতাংশ পূরণ হবে।

ভিটামিন “সি” উচ্চ পরিমাণ থাকে

আমড়া ভিটামিন “সি” এর অবিশ্বাস্য উৎস। সুসাস্থ এবং শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ গুলির পরিচালনার জন্য ভিটামিন “সি” খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হাড় এবং দাঁত রক্ষণাবেক্ষণ, বিভিন্ন রোগ নিরাময়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ভিটামিন “সি” অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির মধ্যে একটি যা শরীরের ফ্রি রেডিক্যাল দ্বারা সৃষ্ট ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা করে। ভিটামিন “সি” মানুষের দেহে প্রোটিন কোলাজেন উৎপাদনে সহায়তা করে। এই কোলাজেন প্রোটিন মানুষের চামড়ায় পাওয়া যায়। কোলাজেন প্রোটিন ত্বকের উজ্জ্বলতা, দৃঢ়তা বজায় রাখে এবং ত্বকের কুঁচকানো প্রতিরোধ করে।

হাড় মজবুত করে

আমড়াতে কিছু ক্যালসিয়াম, ভিটামিন “কে” রয়েছে। এই ক্যালসিয়াম, ভিটামিন “কে” হাড় শক্তিশালী করার জন্য সহায়ক।

পেশী শক্তি বৃদ্ধি করে

আমড়াতে অল্প পরিমান থিয়ামিন রয়েছে। থিয়ামিন মানুষের পেশী শক্তিশালী করার জন্য দরকারী।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *