চকলেট কেন খাবেন? জেনে নিন এর স্বাস্থ্য উপকারীতা।

চকলেট পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। শিশু থেকে বুড়ো সব বয়সের মানুষের কাছেই চকলেট খুবই পছন্দের একটি খাবার। সাধারণত বাচ্চারা চকলেট একটু বেশি পছন্দ করে, আর মায়েরা এ সুযোগটি নেয় এবং বাচ্চাদের চকলেটের লোভ দেখিয়ে তাদের অপছন্দের খাবার গুলি খাইয়ে নেয়। অনেকে আবার দাঁতের ক্ষয় কিংবা ডায়াবেটিকসের ভয়ে ইচ্ছা থাকলেও চকলেট খেতে পারেন না। কিন্তু সব চকলেটেরই শরীরের জন্য উপকারী কিছু উপাদান থাকে তা হয়তো অনেকেই জানেনা।

চকলেট এর মূল উপাদান হচ্ছে কোকোয়া, যা হচ্ছে কোকো গাছের বীজ, এটি তিতা স্বাদযুক্ত এবং খাদ্য গুণে ভরপুর। চকলেটে তেতো স্বাদ দূর করতেই এতে দুধ, চিনি যোগ করা হয়। বাজারে আমরা সাধারণত দুই প্রকার চকলেট দেখতে পাই একটি হচ্ছে ডার্ক চকলেট আর অন্যটি হচ্ছে দুধ চকলেট। ডার্ক চকলেটে কোকোয়ার পরিমাণ ৭০% বা তার বেশি থাকে আর কোকোয়া চকলেটকে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এ পরিণত করে যে কারণে ডার্ক চকলেট আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।

চকলেটের উপকারীতা

হার্ট ভালো রাখে:

যারা পরিমাণ মতো নিয়মিত ডার্ক চকলেট খান তাদের হার্ট অন্যদের তুলনায় অনেক ভালো থাকে। ডার্ক চকলেট উচ্চ রক্তচাপ কমিয়ে রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক করে, যেটি হার্ট সুস্থ্য রাখতে সহায়ক ভূমিকা রাখে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে:

ডার্ক চকলেটে ক্যাটেকিনস  নামক একটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্যান্সার প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। এই অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট আমাদের শরীর থেকে টক্সিন বের হয়ে যেতে সহায়তা করে। যার ফলে আমাদের শরীরে ক্যান্সার সেল জন্ম নেওয়া অনেকাংশে কমে যায়।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনে:

কোকোয়া রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ কমিয়ে আনে এবং ইনসুলিন লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখে।

স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে:

square chokolateডার্ক চকলেটে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে খুবই কার্যকর ভূমিকা রাখে। ফলে স্মৃতিভ্রম এর ঝুঁকি কমায় ও মনোযোগ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, যারা নিয়মিত ডার্ক চকলেট খায় তারা অন্যদের তুলনায় বেশি মেধাবী ও বুদ্ধি সম্পন্ন হয়।

স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়:

ডার্ক চকলেট উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে এবং হৃদ যন্ত্রের বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমায়। এছাড়া চকলেট রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে এবং মানসিক চাপ কমায়। ডার্ক চকলেট স্ট্রোকের ঝুঁকি ২০ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে আনে।

কোলেস্টেরল কমায়:

ডার্ক চকলেট আমাদের শরীরের গঠনে সহায়তা করে। এবং এটি আমাদের শরীর থেকে খারাপ কোলেস্টেরল দূর করে ভালো কোলেস্টেরল এর পরিমাণ বৃদ্ধি করে।

ত্বক সুন্দর করে:

ডার্ক চকলেট আমাদের ত্বককে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে সহায়তা করে যা ত্বকের সানবার্ন হ‌ওয়ার জন্য দায়ী। তাছাড়া ডার্ক চকলেটকে গলিয়ে তা ত্বকের রূপচর্চার কাজেও ব্যবহার করা যায়।

চুল পড়া কমায়:

ডার্ক চকলেট খেলে শরীরে রক্ত প্রবাহের হার বেড়ে যায়। যা চুলের গোড়ায় পুষ্টির ঘাটতি দূর করে। ফলে চুল পড়া কমে যায়।

চকলেট এর ক্ষতিকর প্রভাব:

  • বাচ্চাদের ক্ষেত্রে মিষ্টি চকলেট খেলে ডেন্টাল ক্যারিজ বা দাঁত ক্ষয় (দাঁতে পোকা) হতে পারে, তাই চকলেট খেলে রাতে দাঁত ব্রাশ করা জরুরি।
  • চকলেট দুধ, চিনি ও চর্বি দিয়ে তৈরি সে কারণে শরীরের জন্য বিভিন্ন ক্ষতির কারণ হতে পারে।
  • ডায়াবেটিস রোগীরা ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী পরিমাণ মতো চকলেট খাবেন।
  • চকলেট বেশি খেলে মোটা হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে।
Share