পেট ব্যথা কমানোর প্রাকৃতিক উপায়।

একটি সুন্দর জীবনযাপনের জন্য প্রয়োজন ভালো স্বাস্থ্য। আমাদের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে হলে আমাদের পেট ভালো রাখতে হবে। কারণ শরীরের অধিকাংশ অভ্যন্তরীণ সমস্যাগুলি পেটের সঙ্গে যুক্ত। পেট খাদ্য গ্রহণ করে এবং শরীরে এনার্জি প্রদান করে।

পেট ব্যথা এমনই এক অসুখ যা দেখা দিতে পারে একদম হুট করেই। কোনো কাজ করছেন কিংবা শুয়ে আছেন, হঠাৎ শুরু হলো পেটে ব্যথা! বেশিরভাগ সময়ে এই ব্যথা সহ্য করা যায় না। পেটে ব্যথার প্রতিকারের আগে এর কারণ জানা জরুরি।

চলুন জেনে নেওয়া যাক পেট ব্যথা কমানোর কয়েকটি প্রাকৃতিক উপায়-

তুলসী পাতা:

তুলসী পাতায় উজেনল নামক একটি উপাদান রয়েছে যা পেটের অ্যাসিডের পরিমাণ হ্রাস করে। তুলসী পাতা শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করতে সহায়তা করে তাই এটি পেটে ব্যথার ঔষধ হিসাবে কাজ করে। এক কাপ গরম জলে সাত-আটটা তুলসী পাতা ফেলে নিয়মিত পান করলে পেটের বদহজমের সমস্যা দূর হবে।

গরম পানির সেঁক: 

দ্রুত পেটের ব্যথা কমাতে গরম পানির সেঁক খুব কার্যকরী। একটি ব্যাগে গরম পানি ভরে ৫- ১০ মিনিট ব্যথা স্থানে রাখুন। প্রয়োজনে পুনরায় পদ্ধতিটি অনুসরণ করুন। এ ছাড়া গরম পানি দিয়ে গোসলও করতে পারেন। তবে গরম পানি সেঁক নেওয়ার সময় একটু সতর্ক থাকুন। না হলে পুড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

আদা বা আদা চা:

পেটের ব্যথা কমাতে আপনি আদা বা আদা চা খেতে পারেন। আদাতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি গুণ, যা ব্যথা হ্রাস করতে সহায়তা করে পাশাপাশি পেটের সমস্যা নিরাময় করে। কুঁচি করে আদা চিবিয়ে খেতে পারেন।

এক কাপ জলে কিছুটা আদা মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। এবার ফুটন্ত জলে চা পাতা দিয়ে ২-৩ মিনিট ফুটিয়ে এক চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন। দিনে ২-৩ বার আদা চা সেবন করলে পেটে ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

চালের জল:

প্রায় সময় পেটে ব্যথা হয় বদহজমের কারণে। বদহজমের কারণে পেটের ব্যথায় আপনি চালের জল খেতে পারেন। এক কাপ চাল কিছু সময় পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। চাল একটু নরম হয়ে গেলে চালের জল ছেঁকে নিয়ে এক চামচ মধু মিশিয়ে নিয়মিত দুই বেলা পান করুন। এতে করে পেটে ব্যথা এবং পেটের সমস্যা দূর হবে।

মৌরি:

পেটের ব্যথা দূর করতে মৌরি খুবই উপকারী। মৌরিতে অ্যান্টি- ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি- ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা পেটের ব্যথা উপশমের পাশাপাশি গ্যাস এর সমস্যা দূর করে।

এক কাপ জলে এক চামচ মৌরি পেস্ট করে মিশিয়ে ৫-১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। এবার ফুটানো জল ঠাণ্ডা হলে ছেঁকে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন। দিনে ১-২ বার পান করলে পেটের ব্যথা থেকে মুক্তি পাবেন।

জিরা:

জিরা সাধারণত মশলা হিসাবে ব্যবহৃত হয় তবে এটি শুধু মশলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। এটি পেটের অনেক সমস্যা প্রতিরোধের ঔষধ হিসাবে ব্যবহৃত হয়। বদহজম, পেটে ব্যথা বা গ্যাসের সমস্যা হলে জিরা খুব উপকার দেয়। পেটের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে জিরা ভালো করে ভেজে নিন। দিনে ২-৩ বার চিবিয়ে খেলে পেটে ব্যথার সমস্যা দূরে হবে।

Share