ত্বকের যত্নে মধু অতুলনীয়। ত্বকের যত্নে মধু কীভাবে ব্যবহার করা হয়?

আদিকাল থেকে রূপচর্চায় মধুর ব্যবহার চলে আসছে। তৈলাক্ত ত্বকে, শুষ্ক ত্বকে, ব্রণ যুক্ত ত্বকে মধু খুবই কার্যকরী। মধু প্রাকৃতিক ভাবেই ব্যাকটেরিয়াবিরোধী, মধুতে আছে এন্টিসেপ্টিক, এন্টিব্যাক্টেরিয়াল ও এন্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান। তাই মধু ব্রণ দূর করে এবং ব্রণ প্রতিরোধ করে। এটি ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

ত্বকের যত্নে মধু কীভাবে ব্যবহার করবেন?

ত্বক উজ্জ্বল করে:

ত্বকের মৃত কোষের আবরণ সরিয়ে ফেলে, লোমকূপের গোড়া পরিষ্কার করে মধু। ফলে ত্বক উজ্জ্বল দেখায়। তাছাড়া বিভিন্ন মাস্কে মধুর ব্যবহার ত্বকের রঙ ফর্সা করে।

এক পিস পাকা পেঁপে, ১ টেবিল চামচ মধু একসাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এছাড়া ১ টেবিল চামচ মধু, ১ টেবিল চামচ কাঁচা হলুদ  একসাথে মিশিয়ে মুখ ও গলায় লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। 

স্ক্রাব হিসাবে:

এক টেবিল চামচ মধু, দুই টেবিল চামচ কাঠাবাদাম গুঁড়ো এবং আধা চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন।  এটি ত্বকে ম্যাসাজ করে লাগান। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

দৈনিক ত্বক পরিষ্কারক হিসেবে মধু:

এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টিসেপ্টিক এবং ব্যাক্টেরিয়ারোধী উপাদান ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে। মধু  ব্ল্যাকহেডস থেকে দূরে রাখার পাশাপাশি সারাদিন ত্বক আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। মুখ কুসুম গরম পানি দিয়ে ভিজিয়ে মধু মুখে মালিশ করুন। ৩০ সেকেন্ড অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন।

কালচে ভাব দূর করে:

ত্বকের কালচে ভাব দূর করার জন্য আমরা মধু ব্যবহার করতে পারি। সেক্ষেত্রে এক টেবিল চামচ মধুর সঙ্গে পাকা কলা দিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ২০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।এতে  ত্বকের  কালচে ভাব দূর হবে।

ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে:

ত্বকের শুষ্কতা দূর করার জন্য সারা বছরই মধু খুবই উপকারী। শীতে ত্বক আরও বেশি শুষ্ক হয়ে যায়। তাই শীতে খুবই যত্নবান হতে হবে। 

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য মধু:

শীতে মধু তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে ভালো, তবে গরমের সময় ব্যবহার করা যাবে না। তৈলাক্ত ত্বকে সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি। যাদের ত্বক তৈলাক্ত, তারা ঘরে প্যাক বানিয়ে ব্যবহার করলে উপকার পাবেন। প্যাক – ডিমের সাদা অংশ, হাফ চা চামচ মধু, লেবুর খোসা পেস্ট হাফ চা চামচ, ডালের বেসন ১ চা চামচ, ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে পেস্ট তৈরি করে ত্বকে ১৫ মিনিট রেখে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে।

ব্রণের দাগ দূর করতে:

আপেল এবং মধুর মিশ্রণ হচ্ছে ব্রণের দাগ দূর করার সবচেয়ে জনপ্রিয় ঘরোয়া পদ্ধতি। প্রথমে আপেলের পেষ্ট তৈরি করে তাতে ৪-৬ ফোঁটা মধু মিশাতে হবে। মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষন অপেক্ষা করে এরপর মুখ ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এটি ত্বকের টানটান ভাব বজায় রাখে এবং গায়ের রঙ হালকা করে। 

Share