ডায়াপার থেকে কি কি সমস্যা দেখা দেয়।

শিশুর ত্বক বড়দের তুলনায় অনেক বেশি স্পর্শকাতর হয়ে থাকে। শিশুর তুলতুলে ত্বকে যখন তখনই হতে পারে জীবাণুর সংক্রমণ। বর্তমান সময় বাচ্চাদের জন্য ডায়াপারের ব্যবহার ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ডায়াপারের ব্যবহারের সুবিধা একাধিক। তবে ডায়াপার ব্যবহারের একাধিক সুবিধা থাকলেও, দীর্ঘ সময় এর ব্যবহারের ফলে শিশুর ত্বক ও স্বাস্থ্য উভয়েরই ক্ষতি হয়ে থাকে।

দীর্ঘ সময় ডায়াপার ব্যবহারের কারণে শিশুর ত্বকে ফুসকুড়ির সমস্যা দেখা দেয়। কারণ শিশুর ত্বক অনেক কোমল ও নমনীয় হয়ে থাকে। বেশি সময় ধরে যদি প্রস্রাবে ভেজা ডায়াপার পরানো থাকে শিশুর, সেক্ষেত্রে র‌্যাশ মারাত্মক আকার ধারণ করে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক, ডায়াপার থেকে কি কি সমস্যা দেখা দেয় সেই সম্পর্কে:

এলার্জির সমস্যা:

ডায়াপার ব্যবহারের ফলে এলার্জিজনিত সমস্যার সৃষ্টি হয়ে থাকে। ডায়পার তৈরির সময় এতে নানা ধরনের রসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করা হয়। এর ফলে শিশুর নরম ত্বকে এলার্জির সমস্যা দেখা দেয়। তাই নরম ও স্কিন ফ্রেন্ডলি মেটেরিয়াল দিয়ে তৈরি ডায়পার একদমই কেনা উচিৎ নয়।

লাল ছাপ বা ঘা হয়:

ডায়পার ব্যবহারের ফলে ত্বকে লাল লাল ছাপ বা ঘা এর মতো র‍্যাসের একটি চিহ্ন হয়ে থাকে। ডায়পার ব্যবহারের নিয়ম সর্বোচ্চ ৮ ঘন্টা। ৮ ঘন্টার কম ব্যবহার করা ভালো। এই ৮ ঘন্টার ভিতর শিশু অনেকবার প্রস্রাব করে ডায়পারের ভিতরে। ফলে ওই জায়গাটা ভিজে থাকার কারণে জীবাণু সংক্রমনের ফলে লাল ছাপ বা ঘা হয়।

স্কিন র‌্যাশ:

অনেক সময় ধরে বাচ্চাদের ডায়পার পড়িয়ে রাখলে তাঁদের ত্বকে স্কিন র‌্যাশ দেখা দেয়। এই র‌্যাশগুলি অত্যন্ত কষ্টকর এবং জ্বালাও করে। ত্বক রুক্ষ হয়ে যাওয়ায় ডায়পারে ঘষা লেগে র‌্যাশ দেখা দেয়। এমনকি এর ফলে প্রভাবিত অংশ ফুলে যায় অনেক সময়।

পাছা ও উরুর উপর ফুসকুড়ি হয়:

দীর্ঘ সময় ডায়াপার ব্যবহারের কারণে শিশুর পাছায় ও উরুর উপর ফুসকুড়ি সৃষ্টি হয়। এই ফুসকুড়িগুলি লাল হয়ে থাকে এবং তরলে ভরা থাকে। পেঁকে গেলে সাদা হয়ে যায় এই ফুসকুড়ি। প্রস্রাবে ভেজা ডায়াপার পরার কারণে এই ফুসকুড়ি হয়ে থাকে।