একটি N95 ফেস মাস্ক কি আপনাকে করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা করতে পারবে?

মারাত্মক নতুন করোন ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার উদ্বেগের কারণে গোটা পৃথিবীজুড়ে এখন ফেস মাস্কগুলি বিক্রি হচ্ছে দেদারসে। আকাশচুম্বী চাহিদা। দিন দিন জ্যামিতিক হারে চাহিদা বাড়ছে। কিন্তু এই মুখোশগুলি কি ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বিরত রাখবে? আমরা জানি, করোনভাইরাসটি বায়ুবাহিত এবং এটি হাঁচি-কাশির মাধ্যমে মানুষের মধ্যে সংক্রমণ হয়ে থাকে।অবশ্য বায়ুবাহিত ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক কতটা কার্যকর সে ব্যাপারে যথেষ্টই সংশয়ে আছেন ভাইরাস বিশেষজ্ঞরা, যাদেরকে বলা হয় ভাইরোলজিস্ট।

তবে পাশে দাড়িয়ে কেউ হাঁচি দিলে এবং হাত থেকে মুখে সংক্রমণ ঠেকাতে এই মাস্ক ব্যবহার করে সুফল পাওয়ার কিছু নজির আছে।আঠারো শতকে প্রথম সার্জিক্যাল মাস্কের চল শুরু হয়। কিন্তু ১৯১৯ সালে স্প্যানিশ ফ্লু মহামারির আগ পর্যন্ত এই মাস্ক আমজনতার হাতে এসে পৌঁছায়নি।ওই মহামারিতে ৫ কোটির মত মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।মাস্ক প্রধানতঃ তিন-চার প্রকারের হয়ে থাকে। N৯৫ মাস্ক,  স্ট্যান্ডার্ড সার্জিক্যাল মাস্ক, কাপড়ের মাস্ক ইত্যাদি। এই মুখোশগুলি তরল ফোঁটাগুলি ব্লক করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে এবং অন্য কোনও ব্যক্তির কাছ থেকে ভাইরাসটি আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়।

ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনে সেন্ট জর্জেসের ডঃ ডেভিড ক্যারিংটন বিবিসিকে বলেন, “সাধারণ সার্জিক্যাল মাস্ক বায়ুবাহিত ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে সুরক্ষা দিতে যথেষ্ট নয়”।”বেশিরভাগ ভাইরাসই” বায়ুবাহিত, তিনি বলেন, এবং এই মাস্কগুলো এতই ঢিলেঢালা থাকে যে এটা বায়ুকে ফিল্টার করতে পারেনা ঠিকঠাক। তাছাড়া যিনি এই মাস্ক ব্যবহার করছেন, তার চক্ষু থাকছে উন্মুক্ত।

তবে হাঁচি বা কাশি থেকে ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি কিছুটা কমাতে সাহায্য করতে পারে এই মাস্ক। আর হাত থেকে মুখের সংক্রমণের বিরুদ্ধেও কিছু সুরক্ষা এটা দেয়।২০১৬ সালে নিউ সাউথ ওয়েলসের একটি সমীক্ষায় বলা হয়, মানুষ প্রতি ঘণ্টায় গড়ে ২৩ বার হাত দিয়ে মুখ স্পর্শ করে।ইউনিভার্সিটি অব নটিংহ্যামের মলিক্যুলার ভাইরোলজির অধ্যাপক জোনাথন বল বলেন, হাসপাতালের মধ্যে একটি নিয়ন্ত্রিত সমীক্ষায় দেখা গেছে রেসপিরেটর হিসেবে তৈরি ফেস মাস্ক ইনফ্লুয়েঞ্জা ঠেকাতে পারে।রেসপিরেটর হচ্ছে এমন একধরণের কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্র যার মধ্যে থাকে একটি বিশেষায়িত ফিল্টার।মূলত বায়ুবাহিত ক্ষতিকর ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র পদার্থের হাত থেকে শ্বাসনালীকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য রেসপিরেটর তৈরি করা হয়।

তবে এই মুখোশগুলি বায়ুবাহিত ভাইরাসের বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেয় না। শুরু করার জন্য, তারা নাক এবং মুখ পুরোপুরি সিল করে না – কণা এখনও প্রবেশ করতে পারে এবং খুব ছোট কণা কেবল মুখোশের উপাদানের মধ্য দিয়ে যেতে পারে। এই মুখোশগুলি পরিধানকারীদের চোখকেও উন্মুক্ত করে দেয় – এবং ভাইরাস সেইরকমভাবে সংক্রামিত হওয়ার একটা সম্ভাবনা রয়েছে। যুক্তরাজ্যের এডিনবার্গ ইউনিভার্সিটির ইউনিভার্সিটি অফ মার্ক উলহাউস বলেছেন, “তারা সহায়তা করতে পারে, তবে তারা আপনাকে পুরো সুরক্ষা দেয় তা পরিষ্কার নয়।

আমরা সবাই জানি যে, চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত কর্মীরাই মাস্ক ব্যবহার করে থাকেন। আর N95- মাস্ক ডাক্তাররাই মূলত ব্যবহার করে থাকেন অপারেশনসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে। করোনাভাইরাস মহামারী চলাকালীন, মাস্ক বা মুখোশ ব্যবহার দ্রুত সাধারণ হয়ে উঠছে।সমস্ত মুখোশ এক নয়। ফিল্টারিং ফেসপিস রেসপিরেটরগুলি, সাধারণত এন 95 মাস্ক হিসাবে পরিচিত যেটি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর অকুপেশনাল সেফটি অ্যান্ড হেলথ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়।

ন: এটি একটি রেসিপিটর রেটিং লেটার ক্লাস। এটি “নন-অয়েল” এর অর্থ দাঁড়ায় যে কোনও তেল ভিত্তিক কণা উপস্থিত না থাকলে আপনি কাজের পরিবেশে মুখোশটি ব্যবহার করতে পারেন। অন্যান্য মাস্কের রেটিং হ’ল আর (8 ঘন্টা তেল প্রতিরোধী) এবং পি (তেল প্রমাণ)।

95: মুখোশগুলি 95 এ শেষ হয়, 95 শতাংশ দক্ষতা থাকে। 99 এ শেষ হওয়া মুখোশগুলির 99 শতাংশ দক্ষতা থাকে। 100 এ শেষ হওয়া মুখোশগুলি 99.97 শতাংশ দক্ষ এবং এটি একটি এইচপিএ মানের ফিল্টার হিসাবে একই।

.3 মাইক্রন: মুখোশগুলি ধুলা, ছোঁয়া এবং ধোঁয়ার মতো দূষকগুলি ফিল্টার করে। রোগ নিয়ন্ত্রণ এবং প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি।) এর মতে, কণিকা এবং বড় ফোঁটাগুলির সর্বনিম্ন আকারের .3 মাইক্রন বাধাটি অতিক্রম করবে না

উপাদান: মুখোশের উপর পরিস্রাবণ উপাদান হ’ল একটি বৈদ্যুতিন স্ট্যাটিক অ বোনা পলিপ্রোপলিন ফাইবার।

ভালভ: কিছু ডিসপোজেবল N95 মুখোশ একটি alচ্ছিক বহির্গমন ভালভ সঙ্গে আসে। সিডিসির মতে, “শ্বাস-প্রশ্বাসের ভালভের উপস্থিতি শ্বাস-প্রশ্বাসের প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস করে, যা শ্বাস নিতে সহজ করে তোলে।

সূত্রঃ  সিডিসি এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)

Share