সিঙ্ক পরিষ্কার রাখার উপায়।

প্রতিটি বাড়ির খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জায়গা হলো রান্নাঘর। আজকালকার দিনে সিঙ্ক রান্নাঘরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। রান্নাঘরে কাজের সময় আমরা সারাক্ষণ সিঙ্কের ব্যবহার করে থাকি। থালা বাসন, তরকারি এবং রান্নাঘরে ব্যবহৃত সবকিছুই সিঙ্কে ধুঁয়ে থাকি। সিঙ্ক ব্যবহারের পাশাপাশি এটা আমাদের নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।

সিঙ্ক নিয়মিত পরিষ্কার না করলে দাগ পড়ে যায়, ছড়ায় রোগজীবাণু, পাইপে ময়লা জমে ছড়ায় দুর্গন্ধ আর বাসা বাঁধে তেলাপোকা। রান্নাঘরে যেহেতু খাবার তৈরি করা হয় এবং খাবার-দাবার রাখা হয় সেহেতু রান্নাঘর পরিষ্কার ও জীবানুমুক্ত রাখা খুব জরুরি। রান্নাঘর পরিষ্কার ও জীবানুমুক্ত রাখতে প্রথমেই আমাদের সিঙ্ক পরিষ্কার করতে হবে। নিচে সিঙ্ক পরিষ্কার রাখার কয়েকটি উপায় দেওয়া হলো-

  • সিঙ্কে কোনো ময়লা বা এঁটোকাঁটা ফেলা যাবে না। এতে সিঙ্কের পাইপে খাবার অবশিষ্ট অংশ জমা হয়ে পঁচে গিয়ে বাজে দুর্গন্ধ ছড়ায়, হয় তেলাপোকার আস্তানা। প্লেট বা থালা-বাসন ধোয়ার আগে অবশিষ্ট এঁটোকাঁটা বা খাবার ভালো করে তুলে, তারপর বাসন পরিষ্কার করুন।
  • প্রতিদিন কাজের শেষে এক টুকরো লেবু বা লেবু খাওয়ার পরে লেবুর খোসা সিঙ্কে ঘষে নিতে হবে। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। এই কাজটি প্রত্যেক দিন করলে কখনোই সিঙ্কে জং বা ময়লার দাগ ধরবে না।
  • পুরানো টুথব্রাশ দিয়ে সপ্তাহে একদিন ১০ মিনিট ধরে গরম পানির সাথে গুঁড়ো সাবান মিশিয়ে সিঙ্ক পরিষ্কার করতে হবে। এতে সিঙ্কে তেল চিটচিটে ভাব জমতে পারবে না।
  • চা-পাতা, চুল, পেঁয়াজের খোসা ইত্যাদিও সিঙ্কে ফেলা যাবে না।
  • সপ্তাহে একদিন বেকিং সোডা দিয়ে সিঙ্কের পাইপ পরিষ্কার করে এক কাপ সাদা ভিনেগার ঢেলে দিন। এতে সিঙ্কের পাইপে কখনো ময়লা আটকে যাবে না।
  • সিঙ্কে থালা বাসন জমতে দেওয়া যাবে না।
  • সবসময় সিঙ্ক সবসময় শুকনো রাখতে হবে।

রান্নাঘর পরিষ্কার রাখার একটি বড় অংশ হচ্ছে সিঙ্ক পরিষ্কার রাখা। এই সিঙ্ক পরিষ্কারের সাথে পরিবারের সকলের স্বাস্থ্য জড়িত থাকে। তাই সবসময় আমাদের সিঙ্ক পরিষ্কার রাখতে হবে।

Share