ভুট্টা বা পপকর্ন গর্ভবতী মায়েদের জন্য। পপকর্ন কি ফলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ?

গর্ভাবস্থা এমন সময় যখন আপনি সর্বাধিক সুস্বাদু খাবারের জন্য আগ্রহী হন।  আপনার মনে যা আসে বা খেতে ইচ্ছা করে আপনার পরিবার ও আপনি চেষ্টা করেন পূরণ করবার।

যেহেতু আপনি একটি শিশু বহন করছেন এবং শিশুটি পুষ্টির জন্য আপনার উপর নির্ভরশীল।  তাই আপনার স্বাস্থ্যকর এবং নিরাপদ খাবার খাওয়ার বিষয়টিও আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে।

পপকর্ন একটি সম্পূর্ণ শস্য এবং এতে ফলিক এসিডের পাশাপাশি এতে প্রচুর পরিমাণে দস্তা থাকে। এটিতে খনিজ এবং ভিটামিন রয়েছে যা গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ভাল। তাই বর্তমানে সহজলভ্য এই খাবারটি মিস করা ঠিক নয়।

গ্রামে একটু কম কিন্তু শহরে বেশি। রাস্তার পাশে, ফুটপাথে ও মোড়ে। যেখানে লোকসমাগম বেশি যেমনঃ বাস স্ট্যান্ড, রেলস্টেশন, স্কুল, কলেজের গেট, কোচিং সেন্টার সর্বত্র দেখা মেলে মচমচে ভাজা পপকর্নের। বাস, ট্রেন, লঞ্চ, স্টীমার-লম্বা যাত্রায় পপকর্ন চাই ই চাই।

সিনেমা দেখা, সিনেমা হলে বা বাড়িতে বসে, পপকর্ন ছাড়া জমেই না। অনেকেই হয়তো জানেন, সিনেমা দেখার সময়কে বলাই হয় পপকর্ন টাইম। প্রিয় সিনেমা দেখতে দেখতে মুচমুচে পপকর্ন সিনেমার আনন্দ বা রসকে বাড়িয়ে তোলে অনেকগুণ।

সিনেমার দৃশ্যের ছন্দের সঙ্গে পপকর্ন খাওয়ার ছন্দ ওঠানামা করে। বুঝতেই পারছেন, আমাদের জীবনে কতভাবে জড়িয়ে আছে মুখরোচক খাবার পপকর্ন।

মজাদার এ পপকর্ন তৈরি হয় ভুট্টা থেকে। আমরা অনেকেই জানি, ভুট্টা অত্যন্ত পুষ্টিগুণসম্পন্ন একটি শস্য? পপকর্নও একটি পুষ্টিকর খাবার। এটি আপনার ডায়েট চার্টের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হতে পারে।

পপকর্ন কি ফলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ?

হ্যা, পপকর্ন ফলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ। যেহেতু পপকর্ন ১০০ শতাংশ অপরিশোধিত শস্য, এটি একটি সম্পূর্ণ খাদ্য শস্য। একটি পরিবেশন করা পুরো শস্যের দৈনিক গ্রহণের প্রায় ৭০ শতাংশ সরবরাহ করতে পারে। পপকর্নে প্রচুর ভিটামিন রয়েছে: ফোলেট, নিয়াসিন, রিবোফ্ল্যাভিন, থায়ামিন, প্যান্টোথেনিক অ্যাসিড এবং ভিটামিন বি 6, এ, ই এবং কে।

গর্ভাবস্থায় পপকর্ন খাওয়ার স্বাস্থ্য উপকারিতা:

প্রতি ১০০ গ্রাম পপকর্নে ক্যালরি রয়েছে ৯০ কিলো ক্যালরি, ডায়েটরি ফাইবার ২০.৭ গ্রাম, কার্বোহাইড্রেট ৯ গ্রাম, প্রোটিন ৩.২ গ্রাম, ফ্যাট ১.২ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ৯ মিলিগ্রাম, ফলেট ৪৬ মাইক্রোগ্রাম, আয়রন ০.৫ মিলিগ্রাম, ম্যাগনেশিয়াম ৩৭ মিলিগ্রাম, নিয়াসিন ১.৭ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ১২০ মিলিগ্রাম, ভিটামিন এ ১০ মাইক্রোগ্রাম, ভিটামিন বি ১৫ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ৭ মিলিগ্রাম।

হাই প্রোটিন:

পপকর্ন প্রোটিনের একটি দুর্দান্ত উৎস যা দেহে অ্যামিনো অ্যাসিড সরবরাহে সহায়তা করে। এগুলি শিশুর বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজন, বিশেষত দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ত্রৈমাসিকের সময়।

স্বাস্থ্যকর জল খাবার:

পপকর্ন সেবন করার একটি সুবিধা হল আপনাকে ওজন বাড়ানোর বিষয়ে চিন্তা করতে হবে না। কারণ এটিতে ফাইবার বেশি এবং ক্যালোরি কম। গর্ভাবস্থায় ভাল ওজন বজায় থাকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি প্রি-এক্ল্যাম্পসিয়া, গর্ভকালীন ডায়াবেটিস এবং গর্ভপাতের প্রবণতা হ্রাস করতে পরিচিত।

নতুন কোষ তৈরিতে সাহায্য:

এতে ফলেট থাকায় এটি নতুন কোষ তৈরিতে, বিশেষ করে গর্ভধারণের সময় সহায়তা করে। পপকর্নে কিছু প্রয়োজনীয় অ্যামিনো অ্যাসিড থাকার কারণে এটি শরীরবৃত্তীয় কাজে সাহায্য করে থাকে। রেনাল ডিসফাংশনসহ কিডনির নানা সমস্যায় পপকর্ন বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

পপকর্নে পর্যাপ্ত পরিমাণে আয়রন ও ভিটামিন বি১২ থাকে, যা নতুন রক্তকোষ তৈরি করতে সাহায্য করে। এতে রক্তাল্পতা দূর হয়।

পপকর্নে উপস্থিত ভিটামিন এ চুলের হারিয়ে যাওয়া কোমলতা ফিরিয়ে এনে চুলকে আরও উজ্জ্বল ও স্বাস্থ্যকর করে তুলতে পারে। ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তি প্রখর করতেও সাহায্য করে।

ভিটামিন এ, সি ও লাইকোপিন ত্বককে উজ্জ্বল করে এবং ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে। পপকর্নে যথেষ্ট পরিমাণে ফাইবার রয়েছে, যা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে পাকস্থলীর স্বাস্থ্যকে সঠিক রাখে।

উচ্চমাত্রার ফাইবার থাকার কারণে পপকর্ন খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় এবং কোলন ক্যানসারের ঝুঁকি হ্রাস করে।

সতর্কতাঃ

কর্নে প্রচুর পরিমাণে শর্করা থাকে। তাই এটি পরিমিতভাবে খাওয়া উচিত। গর্ভাবস্থার জন্য পপকর্ন একটি নিরাপদ বিকল্প। তবে কয়েকটি বাধা রয়েছে যা এটি অনিরাপদ করে তুলেছে। পপকর্ন নিজে থেকেই স্বাস্থ্যকর।

মাইক্রোওয়েভে তৈরি পপকর্ন নিরাপদ নয়। স্বাদ যুক্ত করেছে এমন পপকর্নের বিষয়ে নজর রাখুন, কিছু স্বাদে সমস্যা তৈরি হতে পারে। সুতরাং, নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনার পপকর্নে কোনও যুক্ত স্বাদ নেই।

লবণ পপকর্ণে সেই অনন্য স্বাদ দেয়। তবে অত্যধিক নুন উচ্চ রক্তচাপের কারণ হতে পারে, এটিকে অস্বাস্থ্যকর করে তোলে।

সূত্রঃ

https://parenting.firstcry.com/articles/popcorn-in-pregnancy-health-benefits-and-risks/

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Share