ক্ষীর পাটিসাপটার রেসিপি।

শীতকাল মানেই বাহারি সব পিঠার স্বাদ নেওয়া। শীতের বিভিন্ন পিঠার মধ্যে পাটিসাপটা অনেক জনপ্রিয়। পাটিসাপটা না খেলে যেন শীত উপভোগ করা যায় না!

পাটিসাপটা নানা উপকরণ দিয়ে নানাভাবে তৈরি করা যায়। যেমন সন্দেশ পাটিসাপটা, ক্ষীর পাটিসাপটা, নারিকেল ও গুড় দিয়ে পাটিসাপটা, আবার পাটিসাপটা দুধে ভিজিয়ে ও খাওয়া যায়। তবে এগুলোর মধ্যে সবথেকে সুস্বাদু ও মজাদার হলো সন্দেশ পাটিসাপটা।

আজ আপনাদের সাথে ক্ষীর পাটিসাপটা কিভাবে বানাতে হয়। অনেকেই হয়ত জানেন, পাটিসাপটার ক্ষীর মজা না হলে এটি খেতেও ভালো না। সাধারণত তরল দুধ ও সুজর মিশ্রণেই তৈরি করা হয় পাটিসাপটার ক্ষীর।

তবে জানেন কি? ক্ষীরের স্বাদ বহুগুণে বেড়ে যায় এতে গুঁড়া দুধ দেওয়া হলে। গুঁড়া দুধের ক্ষীরে তৈরি নরম পাটিসাপটা পিঠা বানিয়ে ফেলতে পারেন খুব কম সময়ে। জেনে নিন ক্ষীর পাটিসাপটার রেসিপি-

উপকরণ

  • চালের গুঁড়া ১ কাপ
  • ময়দা আধা কাপ
  • গুঁড়া দুধ ১/৩ কাপ
  • লবণ আধা চা চামচ
  • খেজুরের গুড় (তরল) আধা কাপ

ক্ষীরসা তৈরির উপকরণ

  • পানি ১ কাপ
  • গুঁড়া দুধ ১ কাপ
  • সুজি ১/৪ কাপ
  • ঘি ২ টেবিল চামচ
  • গুড় ১/৩ কাপ

চালের গুঁড়া, ময়দা, গুঁড়া দুধ ও লবণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। খেজুরের গুড় দিয়ে মিশিয়ে নিন। পানি দিন প্রয়োজন মতো। পাতলা ব্যাটার তৈরি করে কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন।

ক্ষীরসা তৈরির জন্য চুলায় প্যান বসিয়ে পানি ও গুঁড়া দুধ মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি গরম হলে সুজি ও ঘি দিয়ে অনবরত নাড়ুন। ঘন হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে গুড় মিশিয়ে নিন।

এবার প্যানে ঘি ব্রাশ করে চুলায় অল্প আঁচে রাখুন। এরপর চামচে ব্যাটার নিয়ে ঢেলে দিন প্যানে। হাতল ধরে প্যান ঘুরিয়ে চারদিকে ছড়িয়ে দিন।

চুলার জ্বাল একদম কম রাখবেন। এক কোনায় লম্বা করে ক্ষীর দিয়ে ভাঁজ করে নিন পিঠা। আরও কয়েক মিনিট উল্টেপাল্টে নামিয়ে পরিবেশন করুন গুঁড়া দুধের ক্ষীর পাটিসাপটা।

চাইলে দুধে ভিজিয়েও খেতে পারেন।