মিষ্টি দই তৈরির সহজ পদ্ধতি।

আমরা সকলেই কম বেশি দই খেতে পছন্দ করি। মেহমান, মিষ্টিমুখ আপ্যায়ন কিংবা রান্নায় দইয়ের জুড়ি মেলা ভার। কিন্তু বাইরে থেকে কেনা দই অনেক সময় ভালো হয় না বা স্বাস্থ্যসম্মত হয় না। আর তাই সেই দই যদি ঘরে বসেই চট জলদি তৈরি করে ফেলা যায় তাহলে তো কথাই নেই।

বাড়িতে দই তৈরি করতে সময় লাগে প্রায় ১০-১২ ঘণ্টার মত। কিন্তু রান্নার মূল অংশটিতে সময় লাগে দেড় ঘণ্টা বাকিটা সময় লাগে দই এর গাঁজন বা ফার্মেন্টেশন হতে।আসুন এবার জেনে নেওয়া যাক, বাড়িতে কিভাবে সহজেই চুলায় মিষ্টি দই তৈরি করবেন-

উপকরণ:

  • দুধ- ১ লিটার
  • চিনি- দেড় কাপ বা স্বাদ অনুযায়ী
  • গুড়ো দুধ- ৬০গ্রাম
  • দইয়ের বীজ- ২ টেবিল চামচ

দইয়ের বীজ নিয়ে চিন্তা করার কিছু নেই প্রথমে একটু কুসুম গরম দুধে অল্প পরিমান লেবুর রস মিশ্রিত করে দইয়ের বীজ তৈরী করে নিতে হবে। দই তৈরি করে দইয়ের বীজ থেকে ২ টেবিল চামচ দিয়ে দিলেই হবে।

প্রণালি: মিষ্টি দই তৈরি করার জন্য প্রথমে দুধ জ্বাল দিয়ে কিছুটা কমিয়ে নিতে হবে এবং ঘন করে নিতে হবে। জ্বাল দেওয়ার সময় দুধ অনবরত নাড়তে হবে যাতে সর না পরে যায়।

দইয়ের সুন্দর কালার আনার জন্য ক্যারামেল তৈরি করতে হবে। এর জন্য অন্য চুলায় মেপে রাখা দেড় কাপ চিনি থেকে ২/৩ টেবিল চামচ চিনি একটি পাত্রে নিয়ে অল্প আঁচে জ্বাল দিতে হবে। চিনির রঙটা লালচে বাদামি হয়ে এলে এতে কয়েক চামচ দুধ দিয়ে নাড়তে হবে।

এবার এই ক্যারামেল দুধ সম্পূর্ণ দুধের মধ্যে দিয়ে নাড়তে হবে। এরপর গুড়ো দুধ ও বাকি চিনি দিয়ে দুধ নামিয়ে নিতে হবে।

এবার যে পাত্রে দই বসাবেন তার ভেতরের গায়ে হাত দিয়ে ভালো করে দইয়ের বীজ লাগিয়ে তাতে জ্বাল দেওয়া দুধ ঢেলে দিয়ে শক্ত করে পাত্রের মুখ বন্ধ করে টাওয়েল বা কম্বল মুড়ে গরম জায়গায় রেখে দিতে হবে ১২ ঘন্টা। এর মধ্যে কিন্তু পাত্র খুলে চেক করতে যাবেন না। ১২ ঘণ্টা পরেই খুলে দেখবেন যে পারফেক্টলি তৈরি হয়ে গেছে আপনার পছন্দসই দই।

Share