আঁচিল দূর করার ঘরোয়া উপায়।

আঁচিল এক প্রকার ভাইরাসজনিত সংক্রামণ। এটি মানুষের শরীরের বিভিন্ন অংশে উঠতে দেখা যায়। আঁচিল কিছুটা ফোস্কার মত। মুখের এখানে ওখানে বা শরীরের অন্য কোনো জায়গায় আঁচিল হলে খুবই বিরক্তিকর লাগে। এটা নিয়ে চিন্তার আর শেষ থাকে না।

আর তখন কোনো রকম উপায় না পেয়ে ডাক্তারের কাছে যেতে হয়। অনেকে আবার লেজার ট্রিটমেন্টও করিয়ে থাকেন। কিন্তু আপনি যদি ঘরে বসেই একটু সময় নিয়ে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পান তাহলে তা কেন ব্যবহার করবেন না!

আসুন জেনে নিই, আঁচিল দূর করার সেরকমই কিছু ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে-

রসুন:

ত্বকের যত্নে রসুন খুবই উপকারী। রসুনে রয়েছে অ্যালিসিন। অ্যালিসিন অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল। রসুন থেঁতো করে আঁচিলের জায়গায় লাগালে উপকার পাবেন।
অথবা কয়েকটি রসুনের কোয়া কুচি করে পেস্ট তৈরি করে এই পেস্টটি ত্বকের আঁচিলের উপর লাগিয়ে নিন। কিছুক্ষণ রেখে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন উপকার পাবেন। তবে বেশিক্ষণ রাখবেন না, ক্ষতি হতে পারে।

পেঁয়াজের রস:

আঁচিল দূর করতে পেঁয়াজও কম প্রয়োজনীয় নয়। পেঁয়াজ কুচি করে কেটে নিন। পেঁয়াজ কুচি ও আধা চামচ লবণ মিশিয়ে সারাদিন ঢাকনা দিযে রেখে দিন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এটি আঁচিলের উপর ব্যবহার করুন। পরদিন সকালে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিরাতে এটি ব্যবহার করুন দেখবেন আঁচিল দ্রুত সেরে গেছে।

বেকিং পাউডার:

ক্যাস্টর অয়েল এবং বেকিং পাউডারের একটি মিশ্রণ তৈরি করে মিশ্রণটা আঁচিলের উপর ভালো করে লাগিয়ে বেঁধে রাখুন জায়গাটা। সারারাত এভাবে রাখুন। দু-তিন দিন পর থেকেই ফল পেতে শুরু করবেন। ক্রমশ আঁচিল অদৃশ্য হয়ে যাবে।

আনারস:

ব্যাকটেরিয়া দূর করতে আনারস সুপরিচিত। এজন্যই বিভিন্ন ক্রিমে এটা ব্যবহার করা হয়। খানিকটা আনারসের রস নিয়ে তাতে সামুদ্রিক লবণ মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করুন। আঁচিলের উপর মিশ্রণটি নিয়ে ১৫ মিনিট ধরে ঘষতে করুন। এতে উপরের স্তর উঠে যাবে। ভালো ফলাফলের জন্য এক সপ্তাহ ধরে এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

কলার খোসা:

কলার খোসার মাধ্যমে আঁচিল সহজেই দূর করা সম্ভব। খোসার ভিতরের অংশটি বের করে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। তারপর আঁচিলের উপর লাগিয়ে রাতে ঘুমিয়ে পড়ুন। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কলার খোসায় অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে যা আঁচিল দূর করতে সাহায্য করে।

টি ট্রি অয়েল:

টি ট্রি অয়েলে অ্যান্টিসেপটিক উপাদান রয়েছে যা ত্বকের যে কোন ইনফেকশন দ্রুত দূর করতে সাহায্য করে। প্রথমে কিছু তুলো পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এবার টি ট্রি অয়েলে ভিজিয়ে নিয়ে আঁচিলের উপর লাগান। কয়েক ঘন্টা এভাবে রেখে দিন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি দিনে তিনবার ব্যবহার করলে বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

ক্যাস্টর অয়েল:

আঁচিল সহ ত্বকের নানান সমস্যা দূর করতে ক্যাস্টর অয়েল বেশ উপকারী। এক টেবিল-চামচ ক্যাস্টর অয়েল ও এক টেবিল-চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে তা আঁচিলের উপর লাগিয়ে সারা রাত রেখে দিন। সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন। এক মাস এই পদ্ধতি অনুসরণ করলে ফলাফল পাওয়া যাবে।

অ্যাপল সাইডার ভিনেগার:

ভিনেগারে ভেজানো তুলো আঁচিলের উপর রেখে দিন সারা রাত। পাঁচ দিন করুন। অ্যাপল সাইডার ভিনেগারে প্রচুর অ্যাসিড রয়েছে। এই অ্যাসিড প্রাকৃতিকভাবে আঁচিল পুড়িয়ে দেয়।

অ্যালভেরা:

অ্যালোভেরায় প্রচুর পরিমাণে ম্যালিক অ্যাসিড রয়েছে যা আঁচিল দূর করতে সাহায্য করে। সেক্ষেত্রে, একটা অ্যালভেরা পাতা কেটে নিন। ভিতরের থকথকে জেলিটা আঁচিলের জায়গায় লাগিয়ে দিন। কয়েকদিন করলেই আঁচিল শুকিয়ে যাবে। এবং নিজে থেকে ঝরে পড়ে যাবে।

লেবুর রস:

দিনে বেশ কয়েকবার লেবুর রস আঁচিলের ওপর ব্যবহার করলে ধীরে ধীরে আঁচিল দূর হয়ে যায়।

Share