পাত চেটে পুটে খাওয়া দই ইলিশ রেসিপি।

ইলিশ আমাদের জাতীয় মাছ। সব থেকে সুস্বাদু ও পুষ্টিগুণসম্পন্ন একটি মাছ। ঝটপট, তাড়াতাড়ি হবে আবার ভিন্ন স্বাদের কিছু রান্না করতে চাইলে সরিষা ও দই দিয়ে মজাদার দই-ইলিশ রান্না করে ফেলতে পারেন।

ইলিশে মাছ প্রচুর তেল সমৃদ্ধ একটি মাছ। এই তেলে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। অন্য মাছের মতো ডোলে ডোলে বা ঘষে ঘষে অতোটা ধোয়া যেমন লাগে  তেমনি বেশি ভাজাও লাগে না। এতো সুস্বাদু ও নরম একটি মাছ ইলিশ তা না খেলে বলে বোঝানো যাবে না।

দই আমাদের সকলের প্রিয় একটি খাবার। ইলিশ মাছও আমাদের সকলের অতি প্রিয় একটি মাছ। এই দুই খাবারের সাথে সরিষা বাটা ও কাঁচা মরিচ শুনেই জিভে জল চলে আসছে। একেবারে অমৃত।

amritoelish

উপকরণ:

ইলিশ মাছ- ৫০০ গ্রাম
পোস্তদানা- ১ টেবিল চামচ
সরিষা- ১ টেবিল চামচ
টক দই- ১০ টেবিল চামচ
লবণ- স্বাদমতো
মরিচের গুঁড়া- আধা চা চামচ
হলুদ গুঁড়া- আধা চা চামচ
চিনি- ১ চা চামচ
সরিষার তেল- ৫ টেবিল চামচ
কাঁচামরিচ- স্বাদমতো

১ টেবিল চামচ পোস্তদানা পানিতে ভিজিয়ে বেটে নিন। গোটা সরিষাও পানিতে ভিজিয়ে বেটে নিন।  লবণ ও কাঁচামরিচ, সরিষা ও পোস্তদানার সাথে   একসাথে বেটে বা ব্লেন্ড করে নিলে ভালো হয়।

মিশ্রণটি একটি বাটিতে ঢেলে ফেটিয়ে রাখা দই, আধা চা চামচ লবণ, হলুদ গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া, চিনি ও ১ টেবিল চামচ সরিষার তেল মেশান। মাছের টুকরাগুলো মিশ্রণে দিয়ে উল্টেপাল্টে নিন। ১৫ মিনিট রেখে দিন এভাবে।

চুলায় হাঁড়ি বসিয়ে মিশ্রণসহ মাছ দিয়ে দিন। চুলার জ্বাল বাড়িয়ে ফুটে ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। ফুটে উঠলে ৩ টেবিল চামচ সরিষার তেল দিয়ে চুলার জ্বাল কমিয়ে মিডিয়াম করুন। হালকা নেড়ে সাবধানে উল্টে দিন মাছের টুকরা।

আধা কাপ গরম পানি দিয়ে ৬ থেকে ৭ মিনিটের জন্য ঢেকে দিন হাঁড়ি। ঢাকনা তুলে আবারও উল্টে দিন মাছ। ৪টি কাঁচামরিচ মাঝখান থেকে চিরে দিয়ে দিন। কয়েক মিনিট ঢেকে রাখুন পাত্র। নামিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার দই-ইলিশ।

Share