ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ আমলকীর স্বাস্থ্য উপকারীতা

আমলকী চিবিয়ে খাচ্ছেন? স্বাদ পছন্দ হচ্ছে না? মনে হচ্ছে ফেলে দি। দয়া করে ফেলবেন না। এবার একটু পানি খেয়ে নিন এবার মিষ্টি স্বাদ পাচ্ছেন তো। আয়ুর্বেদে আমলকী অমৃত ফল হিসাবে পরিচিত। ভেষজ গুণে অনন্য আমলকী গাছের ফল ও পাতা দুটিই ওষুধরূপে ব্যবহার করা হয়। আমলকিতে প্রচুর ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে। পুষ্টি বিজ্ঞানীদের মতে – আমলকীতে পেয়ারার চেয়ে ৩ গুণ, কাগজি লেবুর চেয়ে ১০ গুণ বেশি ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে। এছাড়াও কমলার চেয়ে ১৫ থেকে ২০ গুণ, আপেলের চেয়ে ১২০ গুণ, আমের চেয়ে ২৪ গুণ এবং কলার চেয়ে ৬০ গুণ বেশি ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে। একজন বয়স্ক লোকের প্রতিদিন ৩০ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘সি’ দরকার হয়। দিনে দুটো আমলকি খেলে এ পরিমাণ ভিটামিন ‘সি’ পাওয়া যায়।

আমলকী মুখের রুচি বাড়ানো থেকে শুরু করে রূপচর্চার কাজেও সে ওস্তাদ। এটি ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে পারে। প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়া গেছে যে, রিউমেটয়েড আর্থ্রাইটিস এবং অস্টিওপোরোসিস রোগে আমলকীর রস কাজ করে। কয়েক ধরনের ক্যান্সারের বিরুদ্ধেও এর কার্যকারিতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। আমলকীর ‘এন্টি-অক্সিডেন্ট’ রূপে কার্যকারিতার পেছনে মূল ভূমিকা ভিটামিন-সি এর নয়, বরং ‘এলাজিটানিন’ নামক পদার্থসমূহের বলে মনে করা হয়।

যেমন এমব্লিকানিন-এ (৩৭%), এমব্লিকানিন-বি (৩৩%), পানিগ্লুকোনিন (১২%) এবং পেডাংকুলাগিন (১৪%) এতে আরো আছে পানিক্যাফোলিন, ফিলানেমব্লিনিন-এ, বি, সি, ডি, ই। এই ফলে অন্যান্য ‘পলিফেনল’ও থাকে। যেমন- ফ্ল্যাভোনয়েড, কেমফেরল, এলাজিক এসিড ও গ্যালিক এসিড। এক কথায় আমলকী যেন সর্ব রোগের ঔষধের ভান্ডার।

আমলকীর উপকারীতা:

আমলকী বা আমলকি (বৈজ্ঞানিক নাম: Phyllanthus emblica) . সংস্কৃত ভাষায় এর নাম ‘আমালিকা’। ইংরেজি নাম ‘amla’ বা ‘Indian gooseberry’ বলা হয়। নিচে আমলকীর উপকারীতা সম্পর্কে আলোচনা করা হলো –

  • আমলকী চুলের জন্য খুবই কার্যকরী। কাচা আমলকি বেটে রস প্রতিদিন চুলে লাগিয়ে ২-৩ ঘন্টা রেখে দিতে হবে। এভাবে একমাস মাখলে চুলের গোড়া শক্ত, চুলের রং কালো হয়, চুল উঠা এবং তাড়াতড়ি চুল পাকা বন্ধ হবে। এটি চুলের খুশকির সমস্যাও দূর করে।
  • আমলকীর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ক্যান্সার প্রতিরোধী গুণ। গবেষণায় করে দেখা গেছে যে, আমলকী ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাধা দেয়।
  • প্রতিদিন সকালে আমলকীর জুস খেলে পেপটিক আলসার প্রতিরোধে কাজ করে।
  • আমলকী শরীরের বিষাক্ত পদার্থ বের করতে সাহায্য করে এবং ওজন কমায়।
  • উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আমলকী খুব দ্রুত কাজ করে। আমলকীর গুঁড়ো মধু দিয়ে প্রতিদিন খেলে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।
  • ভিটামিন সি তে পরিপূর্ণ আমলকী। আমলকী রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে, সর্দি-কাশির সারাতে ও হজম ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। প্রতিদিন এক চামচ আমলকীর রস মধু দিয়ে খেলে সর্দি-কাশির প্রকোপ থেকে রেহাই পাওয়া যাবে।
  • হজমে সাহায্য করে ও ক্ষুধা বাড়ায়।
  • আমলকী ত্বকের বলিরেখা দূর করতেও সাহায্য করে।
  • আমলকী রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমান ঠিক রাখতে ও চোখের দৃষ্টি শক্তি ভালো রাখতে সাহায্য করে।
  • আমলকী লিভারের স্বাস্থ্যর জন্য ভালো। এটি লিভার থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিতে ও লিভারের কার্যক্ষমতা ভালো করতে সাহায্য করে।
Share