পেট ভালো রাখে কোন খাবারগুলি।

পেট মানুষের শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। অস্বাস্থ্যকর খাবার খেলে বা সকল প্রকারের খাবার খেলে পেটে দেখা দেয় গণ্ডগোল, মানে পেটের সংক্রমণ যথেষ্ট ঝামেলা সৃষ্টি করে। শরীরের হজম ব্যবস্থার কেন্দ্রস্থল হল পেট। শরীরের ঠিকঠাক সঞ্চালনে, অনেক কিছুর জন্যই পেট সঠিক রাখা প্রয়োজন। সার্বিক সুস্থ্যতার জন্য পেট ভালো থাকা খুবই দরকারি।

পেটকে ভালো রাখার দুটোই উপায় রয়েছে- এক ব্যায়াম, আরেক হল নিয়ম সঙ্গত খাওয়া দাওয়া। পেট ভরে শুধু খাবার খেলে হবে না, খেতে হবে পেট ভালো রাখা খাবার। যা শরীর সুস্থ্য রাখার পাশাপাশি পেট ভালো রাখবে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক, পেট ভালো রাখে কোন খাবারগুলি:

বেল :

বেল হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। বেলে রয়েছে আঠার মতো পদার্থ যাকে বলে ‘ফেরোনিয়া গাম’। এটি সাধারণত হজম শক্তি বৃদ্ধি করে ডায়রিয়া এবং আমাশয় থেকে মুক্তি দিতে ব্যবহৃত হয়।

কলা :

কলার অন্দরে এমন কিছু উপাদান রয়েছে, যা পাচক রসের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়। এছাড়া কলার মধ্যে পেকটিন নামক এক ধরণের রাসায়নিক উপাদান থাকে যা মানুষের হজমক্রিয়া বাড়িয়ে তোলে। এর পাশাপাশি কোষ্টকাঠিন্য রোধ করে। শুধু পেট ও হজমের জন্যই কলার গুণাবলী সীমিত না। কলার আরো অনেক স্বাস্থ্যে উপকারিতা আছে।

ইসবগুলের ভুসি :

ইসবগুলের ভুসি খুবই শক্তিশালী প্রিবায়োটিক জাতীয় খাবার। এর উচ্চমাত্রার আঁশ অন্ত্রে দ্রুত উপকারী ব্যাকটেরিয়ার কলোনি তৈরি করে হজম প্রক্রিয়াকে সহজ করে এবং অন্ত্রের যেকোনো সংক্রমণের হার কমায়। ইসবগুলের ভুসি কোষ্টকাঠিন্য দূর করে এবং পেটের জন্য খুবই উপকারী।

ডাবের পানি :

ডাবের পানিতে আছে প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রোলাইট যা শরীর আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। এই ইলেক্ট্রোলাইট প্রাকৃতিকভাবেই মানব শরীরে পাওয়া যায় কিন্তু শরীর পানিশূন্য হলে বা অসুস্থ হলে শরীর থেকে এর পরিমাণ কমে যায়। ডাবের পানি এটা প্রাকৃতিকভাবে পূরণ করতে সাহায্য করে। তার পাশাপাশি পেট ভালো রাখার খাবার হিসাবে ডাবের পানি খুবই উপকারী।

পেঁপে :

পাঁকা পেঁপেতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন, প্রোটিন, পুষ্টি ও মিনারেল। তেমনি কাঁচা পেঁপেতেও রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন। কাঁচা পেঁপে লিভার বৃদ্ধিরোধ করে এবং পাইলসের সমস্যা দূর করে। আবার পেঁপে গ্যাস্ট্রিক ও বদহজমের সমস্যা দূর করে। ওষুধ হিসেবে কাঁচা ও পাকা পেঁপের অনেক গুণ রয়েছে। তাই পেট ভালো রাখতে পেঁপের গুরুত্ব রয়েছে অপরিসীম।

দই :

একটা মানুষের পেটে কয়েক লক্ষ ব্যাকটেরিয়া থাকে, এই ব্যাকটেরিয়া আপনার হজমে সাহায্য করে। দই-এ বিশেষ করে প্রচুর স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়া আছে, যা শুধু হজমে সাহায্য করা নয় বরং পেটের সকল সংক্রমণ প্রতিরোধ করে।

সবুজ শাক সবজি :

শাকসবজি অনেক রোগের ওষুধ। নিয়মিত সবুজ শাক সবজি খেলে অনেক রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। পেট ভালো রাখতে সবুজ শাক সবজির বিকল্প নেই। শরীর ও পেটের সব অংশের কাজ সম্পন্ন করে সবুজ শাক সবজি। খাবার হজম করতে,রক্ত বৃদ্ধি করতে, পেট পরিষ্কার রাখতে সবুজ শাক সবজির গুরুত্ব রয়েছে অপরিসীম।

লাল রঙের খাবার :

পেট ভালো রাখতে লাল রঙের খাবার খুব উপকারী। লাল আটা, চাল, ময়দা প্রিবায়োটিক আঁশের খুব ভালো উৎস। এ ধরনের আঁশে বিশেষ একটি উপাদান অ্যারাবিনক্সিলান ওলিগোস্যাকারাইড থাকে, যা অন্ত্রের বিফিডো ব্যাকটেরিয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে অন্ত্রকে সুস্থ রাখে ও পেট ভালো রাখে।

পেঁয়াজ ও রসুন :

পেট ভালো রাখতে পেঁয়াজ ও রসুন খুবই উপকারী। পেঁয়াজরসুনে রয়েছে প্রিবায়োটিক যা অন্ত্রের বিফিডোব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। ব্যাকটেরিয়াজনিত সকল পেটের রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

রেফারেন্স: