দাম্পত্য জীবনে সুখী থাকতে চান? জেনে নিন গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি টিপস।

ভালোবাসা একটা অনুভূতি, যেটা একজন মানুষ অপর একজন মানুষের প্রতি অনুভব করে। আর প্রেম হলো ভালোবাসার সাথে সম্পর্কিত উত্তেজনাপূর্ণ রহস্যময় অনুভূতি, যেটা যৌন আবেগীয় আকর্ষণ হতে উদ্ভূত। আর স্বামী স্ত্রীর সুখী দাম্পত্য জীবনের পূর্ব শর্ত হলো এই প্রেম, ভালোবাসা, পারস্পারিক বিশ্বাস ও পারস্পারিক শ্রদ্ধা।

স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালোবাসা:

দাম্পত্য জীবনে সুখী থাকার প্রধান এবং প্রথম শর্ত হলো স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালোবাসা। যদি স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালোবাসা না থাকে তাহলে কোন কিছুতেই তারা সুখী হতে পারবে না। অন্য কোন কিছুই তাদের দাম্পত্য জীবনে সুখের ছোঁয়া দিতে পারবে না।

স্বামী স্ত্রীর পারস্পারিক বিশ্বাস:

দাম্পত্য জীবনের স্বামী স্ত্রী একে অন্যের প্রতি বিশ্বাস দাম্পত্য জীবনের সুখের আরেক চাবিকাঠি। স্বামী স্ত্রীর সম্পর্কে যদি অবিশ্বাস, সন্দেহ জায়গা করে নেয় তাহলে সেই সম্পর্ক কখনোই সুখের হতে পারে না। সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য স্বামী স্ত্রী দুজন দুজনের আস্থা, বিশ্বাস, ভরসার পাত্র হওয়া খুবই জরুরী।

ভালোবেসে মানিয়ে নেওয়া:

সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে স্যাক্রিফাইস ও কম্প্রোমাইজ মনোভাব অর্থাৎ ভালোবেসে মানিয়ে নেওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দাম্পত্য জীবনে কাছের নতুন মানুষ গুলোকে আপনি যদি ভালোবেসে মানিয়ে নিতে না পারেন তাহলে দাম্পত্য জীবনের সুখের চিন্তা করা অলীক স্বপ্নের মত হবে।

স্বামী স্ত্রীর পারস্পারিক সম্মান:

marriage bride groom সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য স্বামী স্ত্রীর পারস্পরিক সম্মান ও শ্রদ্ধা থাকা খুবই জরুরী। একে অন্যকে ছোট করা মোটেও উচিত নয়। কারণ মনে রাখা উচিত স্বামী স্ত্রী দুজন একে অপরের পরিপূরক। একজন আরেকজনকে যদি শ্রদ্ধা সম্মান না করে এবং ছোট করে তাহলে পক্ষান্তরে সে নিজেই সকলের কাছে ছোট হয়ে যায়, যা সুখী দাম্পত্য জীবনের অন্তরায়।

স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া:

স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মান অভিমান বা ঝগড়া না থাকলে দাম্পত্য জীবনের কথা কল্পনাই করা যায় না। তাই মাঝে মাঝে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হওয়া ভালো এতে মনের মধ্যে থাকা চাপা অভিমান বেরিয়ে আসে এবং মন হালকা হয়ে যায়। তবে খেয়াল রাখতে হবে যেন ঝগরা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে না যায়। স্বামী স্ত্রীর একে অন্যের প্রতি মান-অভিমান এবং একে অন্যের মান ভাঙানোর মধ্যেও ভালোবাসা প্রকাশ পায় যা সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য খুবই সহায়ক।

স্বামী স্ত্রীর পারস্পারিক ব্যবহার:

দাম্পত্য জীবনের সুখের জন্য স্বামী স্ত্রীর পারস্পারিক ব্যবহার ভালো হওয়া খুবই জরুরী। স্বামী কষ্ট পায় এমন ব্যবহার যেমন স্ত্রীর করা উচিত নয়, তেমনি স্ত্রী দুঃখ পায় এমন ব্যবহারও স্বামীর করা উচিত নয়। একে অন্যকে যথেষ্ট স্বাধীনতা দেওয়া উচিত, নজরদারি করা বা শৃঙ্খলা সুখী দাম্পত্য জীবনের অন্তরায়।

পারস্পারিক দোষারোপ:

দোষারোপ করা একটি মারাত্মক ব্যাধি। সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য একে অন্যকে দোষারোপ করা বন্ধ করতে হবে। দাম্পত্য জীবনে কোন সমস্যা হলে একে অন্যকে দোষারোপ না করে ভালোবেসে সমস্যার সমাধান করতে হবে।

সর্বোপরি পারস্পারিক শ্রদ্ধা, ভালোবাসা, সম্মান, মানিয়ে নেওয়ার মানসিকতা, নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া, আস্থা, বিশ্বাস ও স্বচ্ছতা এসবই একটি সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Share