ত্বক সুন্দর করতে ও দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে চান ভিটামিন “এ” সমৃদ্ধ খাবার খান।

ভিটামিন “এ” আমাদের শরীরের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট। ভিটামিন “এ” আমাদের শরীরে তৈরি হয় না, এজন্য আমাদের খাদ্যের সাথে ভিটামিন “এ” গ্রহণ করা খুবই জরুরি। খাদ্যের মাধ্যমে গ্রহণকৃত ভিটামিন “এ” আমাদের লিভারে গিয়ে জমা হয় এবং আমাদের শরীর প্রয়োজন অনুসারে তা ব্যবহার করে।

ভিটামিন “এ” অনেক শরীরবৃত্তীয় কাজের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এদিকে আমাদের ত্বকের কোষগুলিকে সুসংহত করে ত্বককে ইনফেকশন থেকে রক্ষা করে। আমাদের দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে ভিটামিন “এ” খুবই উপকারী। এছাড়া শক্ত রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, আমাদের দৈহিক বৃদ্ধি, আমাদের যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি ইত্যাদিতে ভিটামিন “এ” এর প্রভাব অনস্বীকার্য।

প্রতিদিন ভিটামিন “এ” গ্রহণের পরিমাণ:

উৎস

বয়স পুরুষ মহিলা গর্ভাবস্থা
0–6 মাস* 400 mcg RAE 400 mcg RAE
7–12 মাস* 500 mcg RAE 500 mcg RAE
1–3 বছর 300 mcg RAE 300 mcg RAE
4–8 বছর 400 mcg RAE 400 mcg RAE
9–13 বছর 600 mcg RAE 600 mcg RAE
14–18 বছর 900 mcg RAE 700 mcg RAE 750 mcg RAE
19–50 বছর 900 mcg RAE 700 mcg RAE 770 mcg RAE
51+ বছর 900 mcg RAE 700 mcg RAE

ভিটামিন “এ” এর খাবারের তালিকাঃ

প্রতিদিন আমরা যে সব খাবার খাই, তাতে কম বেশি ভিটামিন “এ” থাকে। কিন্তু কিছু কিছু খাবার আছে যে গুলোতে ভিটামিন “এ” এর একটু বেশি। নিচে কয়েকটি উচ্চ ভিটামিন “এ” সমৃদ্ধ খাবার দেওয়া হলো –

দুধ থেকে তৈরি চীজ

১ ফালিতে ১১৫ মাইক্রোগ্রাম

অর্ধ সেদ্ধ ডিম

১টি বড় ডিমে ৭৪ মাইক্রোগ্রাম

গাজর

১টি মাঝারি গাজরে ৩৯২ মাইক্রোগ্রাম

পালংশাক

১ কাপে ১৪১ মাইক্রোগ্রাম

মিষ্টি আলু

১ কাপে ১,৮৩৬ মাইক্রোগ্রাম

মিষ্টি কুমড়া

১ কাপে ২৪৫%(RDI)

লাল ক্যাপসিকাম

১টি বড় লাল ক্যাপসিকামে ২৫৭ মাইক্রোগ্রাম

তরমুজ

১ফালিতে ৮০ মাইক্রোগ্রাম

পেঁপে

১টি ছোট পেঁপেতে ৭৪ মাইক্রোগ্রাম

পেঁয়ারা

১টি মাঝারি পেঁয়ারাতে ১৭ মাইক্রোগ্রাম

মাখন

১ চামচ ৯৭ মাইক্রোগ্রাম

আম

১টি মাঝারি আমে ১৮১ মাইক্রোগ্রাম

ভিটামিন “এ” এর অভাবে কি রাতকানা রোগ হয়?

ভিটামিন “এ” এর অভাবে রাতকানা রোগ হয়ে থাকে। রাতকানা রোগীরা দিনের আলোতে স্বাভাবিক ভাবেই চলাচল করতে পারে কিন্তু রাতের বেলা অনেক সময়ে সমস্যা হয়। অনেকে একেবারে দেখে না আবার অনেকে ভুল দেখে।

Share