ডায়াবেটিস রোগীরা কি কাঁঠাল খেতে পারবেন?

প্রকৃতি আরোগ্যকর্তা হিসাবে যে সমস্ত বিস্ময়কর ফল আমাদের উপহার দিয়েছে – সুস্বাদু, মিষ্টি ও মোহনীয় ঘ্রাণের কাঁঠাল তাদের মধ্যে একটি। কাঁঠাল বিভিন্ন স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্যা যেমনঃ ক্যান্সার, ব্লাড প্রেসার, ডায়াবেটিস, ওজন কমানো, নার্ভ সিস্টেম সম্পর্কিত বিষয়গুলি নিরাময়ে কাজ করে। এটি ত্বককে সুন্দর ও লাবণ্যময় করে তোলে।

কাঁঠাল ভিটামিন বি-6, ফাইবার, ম্যাগলেসিয়াম, পটাশিয়াম এবং ভিটামিন “সি” এর একটি দুর্দান্ত উৎস। এই পুষ্টি দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহ প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে যা হার্টের রোগ এবং টাইপ-2 ডায়াবেটিসের মতো রোগের কারণ হতে পারে।

পাকা কাঁঠাল আপনার রক্তে শর্করার মাত্রাকে প্রভাবিত করে, তাই ডায়াবেটিসে আক্রান্ত লোকদের ডায়েটে যুক্ত করার আগে এটি সম্পর্কে জানা উচিত। এটি কীভাবে রক্তে শর্করার মাত্রাকে প্রভাবিত করে এবং ডায়াবেটিসযুক্ত ব্যক্তিদের জন্য এটি নিরাপদ কিনা এটা নিয়ে আলোচনা করা হলো –

কাঁঠাল বেশিরভাগই শর্করা নিয়ে গঠিত যা আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি করতে পারে। তবুও, কাঁঠালের অন্যান্য পুষ্টির কারণে রক্তে শর্করার মাত্রাকে কমাতে পারে।

ডায়াবেটিস রোগী কি পাকা কাঁঠাল খেতে পারেন?

হ্যাঁ, ডায়াবেটিস রোগী পরিমাণ মতো পাকা কাঁঠাল খেতে পারেন। কাঁঠালের বেশ কয়েকটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে সহায়তা করতে পারে।

কাঁঠালের একটি মাঝারি গ্লাইসেমিক ইনডেক্স (GI) (৫০-৬০) স্কোর রয়েছে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, প্রাপ্তবয়স্করা যারা পাকা কাঁঠাল খেয়েছিল তাদের রক্তে শর্করার মাত্রা উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত হয়েছিল।

রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে পারে:

কাঁঠালের গ্লাইসেমিক ইনডেক্স (GI) মাঝারি কারণ এতে প্রোটিন এবং ফাইবার আছে। গ্লাইসেমিক ইনডেক্স হল একটি পরিমাপ যা কোন খাদ্য রক্তে শর্করার মাত্রা কত দ্রুত বৃদ্ধি করতে পারে।

কাঁঠালের মধ্যে প্রোটিন এবং ফাইবার রয়েছে, যা আস্তে আস্তে হজমে হতে সাহায্য করে এবং রক্তে শর্করার মাত্রা দ্রুত বৃদ্ধি করে না। এছাড়া, কাঁঠাল ফ্ল্যাভোনয়েড অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এ সমৃদ্ধ, যা দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমায়। কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, কাঁঠাল রক্তে শর্করার মাত্রা হ্রাস করতে পারে।

তবে অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়। আপনার শরীরের অবস্থা বুঝে খাবেন। যেহেতু কাঁঠালে ফাইবারের পরিমাণ কম এবং উচ্চমাত্রায় কার্বোহাইড্রেট (৩৫) রয়েছে যা রক্তে শর্করাকে বাড়িয়ে তুলতে পারে, এজন্য ডায়াবেটিস থাকলে অতিরিক্ত পাকা কাঁঠাল না খাওয়া ভালো।

কাঁঠালে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে সহায়তা করে। কাঁঠাল খুবই স্বাস্থ্যকর একটি ফল যা ডায়াবেটিস রোগীরা পরিমিত পরিমাণে খেতে পারেন।

সূত্র: healthline

Share