ঝরঝরে পোলাও রান্না করার পারফেক্ট রেসিপি।

পোলাও খুবই মুখরোচক একটা খাবার। আর এর সঙ্গে মাংস হলে তো কথাই নেই। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা ঝরঝরে পোলাও রাঁধতে পারেন না বা রান্না করার সময় পানির পরিমাণ কম বা বেশি হয়ে যায়। তাই তাদের জন্য আজ, ঝরঝরে পোলাও তৈরির রেসিপি নিয়ে চলে আসলাম।

চলুন জেনে নেওয়া যাক, ঝরঝরে পোলাও রাঁধতে কি কি লাগছে?

  • চাল: ৫০০গ্রাম
  • কাঁচা মরিচ: ৪/৫ টি
  • পেঁয়াজ কুচি: ২/৩টি
  • তেজপাতা: ২/৩টি
  • দারুচিনি: ৪/৫ টুকরা
  • এলাচ: ৪/৫টি
  • আদা বাটা: ১চামচ
  • জিরা বাটা: ১ চামচ

কিসমিস, গরম পানি, লবণ, ঘি, তেল পরিমাণমত, দুধ ও চিনি স্বাদ মতো।

প্রস্তুত প্রণালী-
ধরুন, আপনি এক কাপ চালের পোলাও রান্না করবেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে এক কাপ চালের জন্য ২ কাপ গরম পানি নিতে হবে। অর্থাৎ, যে কাপে চাল মাপবেন সেই কাপের দ্বিগুণ পানি দেবেন।

প্রথমে চাল ভাল ভাবে ধুয়ে ১০ মিনিট ঝরা দিয়ে রেখে দিন। তারপর একটি কড়াই চুলায় বসিয়ে ভাল করে গরম করে নিন। গরম হলে সেখানে তেল বা ঘি দিয়ে দিন। তেল ভাল ভাবে গরম হবার পর তেজপাতা, এলাচ ও দারুচিনি দিয়ে কিছুক্ষন নাড়ুন এবং আস্তে আস্তে ঝরা দিয়ে রাখা চাল গুলো ঢেলে দিয়ে ১০ মিনিট নাড়তে থাকুন। ১০মিনিট হয়ে গেলে চাল গুলো কড়াই থেকে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখুন। আবারও ওই কড়াইতে কিছুটা সয়াবিন তেল দিয়ে তার মধ্যে পেঁয়াজ কুচি গুলো দিয়ে দিন। এবং পেঁয়াজ যাতে তাড়াতাড়ি ভাজি হয়ে যায় সেজন্য তাতে সামান্য একটু লবণ ও চিনি দিয়ে দিন।

পেঁয়াজ ভাজা হয়ে গেলে একটি হাঁড়িতে পানি গরম বসান। পানি গরম হলে তাতে প্রয়োজন মতো লবন, চিনি, আদাবাটা, জিরাবাটা ও এক কাপ দুধ দিয়ে কিছুক্ষন নাড়ুন। এবার আস্তে আস্তে চাল গুলো ঢেলে দিয়ে হাঁড়িটি ঢেকে দিন। মাঝে মাঝে ঢাকনা খুলে নেড়ে দিন। চাল আধা সেদ্ধ হলে ঢাকনা খুলে একবার নেড়ে দিয়ে কাঁচামরিচ মিশিয়ে আবার ঢাকনা দিয়ে দিন।

সব চেয়ে ভাল হয় এই সময় লোহার তাওয়ায় হাঁড়ি বসিয়ে দমে দিলে। পনেরো-বিশ মিনিট দমে রাখলেই পোলাও রেডি। তারপর ওপর থেকে বেরেস্তা এবং ঘি ছড়িয়ে দিলেই তৈরি হয়ে যাবে আপনার পছন্দের পোলাও।

বিরিয়ানির পানির ক্ষেত্রে যেভাবে করবেন:
বিরিয়ানিতে যেহেতু মাংস দিতে হয় তাই মাংস রান্নার কিছুটা গ্রেভি বা ঝোল তো থাকেই। তাই পোলাওয়ের তুলনায় বিরিয়ানিতে পানি কিছুটা কম দিতে হয়। যেমন: ১ কাপ চালের জন্যে পৌনে ২ অথবা দেড় কাপ পানি লাগে। এটা চালের কোয়ালিটি ও মাংসের গ্রেভি কতোটা রাখা হয়েছে সেটার উপরেই সম্পূর্ণ ডিপেন্ড করে।

**বাসমতি চাল ভাজতে হয়না। তাই এক্ষেত্রে এক কাপ চালের জন্যে দেড় কাপ পানি লাগে। আশা করি টিপসগুলি আপনাদের কাজে দেবে।

Share