জন্ডিসের লক্ষণ কি কি?

জন্ডিস আসলে কোন রোগ নয়, এটি রোগের লক্ষণ মাত্র। জন্ডিস হলে রক্তে বিলিরুবিনের মাত্রা বেড়ে যায় ফলে ত্বক, চোখের সাদা অংশ এবং অন্যন্য মিউকাস ঝিল্লি হলুদ হয়ে যায়।

জন্ডিস হলে শরীরের চামড়া ফ্যাকাশে হয়ে যায়। এ রোগের সুনির্দিষ্ট কোনো চিকিৎসা নেই। প্রতিরোধই এ রোগ থেকে মুক্তির একমাত্র উপায়।

জন্ডিস (jaundice) সাধারণত হেপাটাইটিস, পিত্তথলির পাথর এবং টিউমার সহ অনেকগুলি কারণে হয়ে থাকে। পানিবাহিত রোগের মধ্যে অন্যতম হলো জন্ডিস।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি লক্ষণ দেখে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার জন্ডিস হয়েছে –

চোখ বা প্রসাবের রং হলুদ হওয়া:

জন্ডিসের প্রধান লক্ষণ হল চোখ ও প্রসাবের রং হলুদ হয়ে যাওয়া। আপনার প্রসাবের বোধ কমে আসবে, প্রসাবের পরিমাণ তুলনামূলক কম হবে। অনেক সময় দেখা দেয় প্রসাব করার সময় ঠিক মতো না হওয়ার কারণে জ্বালাপোড়া করে।

জন্ডিসের কারণে আপনার দুই চোখের সাদা অংশ হলুদ হয়ে যায়। রক্তে বিলিরুবিনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে চোখ হলুদ হয়ে যায়। আবার সমস্যা বেশি হলে পুরো শরীর হলুদবর্ণ ধারণ করতে পারে।

বমি বমি ভাব হওয়া:

অধিকমাত্রায় জন্ডিস হলে বমি বমি লাগে বা অনেক সময় বমি হয়। আপনি কোনো খাবার খেলেও বমি পাবে আবার না খেলেও বমি পাবে। সব সময় অস্বস্তি লাগবে। জন্ডিসের মাত্রা যত দিন থাকবে বমি ভাবটা ততদিন থাকবে। জন্ডিস কমতে থাকলে বমি হওয়া কমতে থাকবে।

শারীরিক দুর্বলতা :

জন্ডিস হলে আপনার শরীরের উপর অনেক বড় প্রভাব পড়বে। আপনার শরীর খুব তাড়াতাড়ি দূর্বল হয়ে যাবে। জন্ডিস হলে আপনার খাওয়ার রুচি কমে যাবে, যার ফলে আপনি খেতে পারবেন না তাই শরীর দুর্বল থাকবে সব সময়। আপনার ঠিকমতো ঘুম হবে না তাই সব সময় শরীর দূর্বল লাগবে।

ক্ষুধামন্দা হওয়া :

জন্ডিস হলে আপনার খাবার খাওয়ার রুচি কমে আসবে। কোনো কিছু খেতে ইচ্ছা করবে না। খেলে হয়তো বমি হতে পারে। জন্ডিসের কারণে আপনার হজম শক্তি কমে যাবে তাই খাওয়ার ইচ্ছা কমে আসবে।

জন্ডিস হলে আপনাকে ঠান্ডা জাতীয় খাবার বেশি খেতে হবে, এতে করে শরীর সব সময় ঠান্ডা থাকবে। ঠান্ডা জাতীয় খাবার খেলে হজম প্রক্রিয়া বৃদ্ধি পাবে।

মৃদু বা তীব্র পেট ব্যথা হওয়া :

জন্ডিস এর কারণে মৃদু পেটে ব্যথা হতে থাকে। আবার কখনও কখনও দেখা যায় তীব্র মাত্রায় পেটে ব্যথা। এই পেটে ব্যথা অনেক সময় সহ্য করার বাইরে চলে যায়। জন্ডিস কমে গেলে এই ব্যথা কমে যায়।

জ্বর জ্বর অনুভূতি কিংবা কাঁপানি দিয়ে জ্বর হওয়া :

জন্ডিস হলে জ্বর জ্বর অনুভূতি হওয়া বা হালকা পরিমাণে জ্বর হওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু মাঝে মাঝে দেখা যায় অনেকের কাঁপানি দিয়ে জ্বর আসে। এই জ্বর বেশি সময় থাকে না। হুট করে আসে আবার হুট করে চলে যায়। তবে হালকা জ্বর প্রায় সময় দেখা যায়। কাঁপানি দিয়ে জ্বর সাধারণত রাতে বেশি হয়ে থাকে।

চুলকানি :

জন্ডিস হলে আপনার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় চুলকাতে পারে। জন্ডিস হওয়ায় আপনার শরীরের চামড়া ফ্যাকাশে হয়ে যায় তাই চুলকালে লাল বর্ণ ধারণ করে। মাঝে মাঝে আপনার চোখও চুলকাতে পারে। চুলকানি এমন পরিমাণে অনুভূত হয় যে আপনি না চুলকিয়ে থাকতে পারবেন না।

রেফারেন্স:
এই সম্পর্কিত আরও পোস্ট পড়ুন::
Share