কোন কোন ভিটামিন এবং খনিজ রক্তসল্পতা দূর করতে সাহায্য করে।

রক্তে লোহিত কণিকা বা হিমোগ্লোবিনের সংখ্যা কমে গেলে রক্তস্বল্পতা দেখা দেয়। এ সময় শরীরে রক্ত বৃদ্ধির জন্য প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিকর খাবার বা ভিটামিন খেতে হবে।

হিমোগ্লোবিন শরীরে অক্সিজেন পরিবহনে সাহায্য করে। সুস্থ্য জীবনযাপনে রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা সঠিক থাকা প্রয়োজন। কিছু ভিটামিন আছে যেগুলি রক্তে হিমোগ্লোবিনের মান ঠিক সহায়তা করে।

নিচে এমন কিছু ভিটামিন দেওয়া হলো –

ভিটামিন বি-12:

ভিটামিন বি-12 এর ঘাটতির ফলে রক্তাল্পতা দূর করতে সহায়তা করে। ভিটামিন বি-12 সমৃদ্ধ খাবার-দাবার লোহিত রক্ত কণিকা উৎপন্ন করতে সাহায্য করে। মাছ, ডিম, গরুর মাংসের লিভার, দুগ্ধ জাতীয় খাবার এই চাহিদা পূরণ করবে।

আয়রন সমৃদ্ধ খাবার:

শরীরে হিমোগ্লোবিন তৈরির জন্য আয়রন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া প্রয়োজন। হিমোগ্লোবিন তৈরিতে লাল মাংস, ডিম, কচু, কলিজা, আলু সিদ্ধ ইত্যাদি খাদ্য তালিকায় রাখতে পারেন। এসব খাবারে আপনার শরীরে রক্ত বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে।

ভিটামিন “সি”:

ভিটামিন “সি” শরীরে আয়রন শোষণের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। আমাদের দেহে রক্তকোষ তৈরিতে ভিটামিন “সি” জাতীয় যে কোন ফল এর উপকারিতা অনেক বেশি। সবধরনের রসালো সাইট্রাস ফল যেমন লেবু এবং কমলা ভিটামিন “সি”-র সবচেয়ে ভালো উৎস।

আর দেহে আয়রন দ্রুত শুষে নেওয়ার জন্য ভিটামিন “সি” সবচেয়ে জরুরি। এর ফলে হিমোগ্লোবিন উৎপাদনের গতিও বাড়ে। স্ট্রবেরি, আপেল তরমুজ পেয়ারা এবং বেদানাতেও প্রচুর পরিমাণে আয়রন আছে।

ফোলেট বা ভিটামিন বি-9:

ফোলেট যা ভিটামিন বি-9 নামে পরিচিত। ভিটামিন বি৯ বা ফলিক এসিড লোহিত রক্ত কণিকা উৎপন্ন করে এবং রক্তসল্পতা প্রতিরোধ করে। শরীরে এগুলোর চাহিদা পূরণে পালংশাক, বাদাম, ডাল, ব্রকলি, পেঁপে, বিট, শিম, ডিম ইত্যাদি।

এই সম্পর্কিত আরও পোস্ট পড়ুন:

এই সম্পর্কিত আরও পোস্ট পড়ুন:

Share