কর্মক্ষেত্র বা পড়াশোনায় মনোযোগ বৃদ্ধির উপায়

কোন কাজ করার ক্ষেত্রে মনোযোগের অভাব শত্রুর মতো কাজ করে। অনেক সময় আপনি কোন একটি কাজ করছেন কিন্তু ফোন কল অথবা সহকর্মী বা বন্ধুদের ডাকাডাকিতে আপনার মনোযোগ সরে যায় যে কারণে আপনার সময় এবং শক্তি দুইটাই নষ্ট হয় এবং আপনি সঠিক সময়ে আপনার কাজটি সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হন। নিচের কৌশলগুলি কোন কাজের প্রতি বা পড়াশোনার ক্ষেত্রে আপনার মনোযোগ বৃদ্ধি করতে খুবই সহায়ক হবে।

আপনার দিনের লক্ষ্য নির্ধারণ করুন :
আপনি আজকে দিনের ভিতরে কি কি কাজ করবেন বা আপনি যদি স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন তাহলে কোন কোন বিষয়ে কতটুকু পড়বেন তা ঠিক করে আগান। তাহলে দেখবেন আপনার ওই কাজের প্রতি বা পড়াশুনার প্রতি মনোযোগ একটু হলেও বেশি থাকবে এবং দিন শেষে হিসাব করতে পারবেন আপনি কতটুকু করলেন।

কাজ গুলিকে ছোট ছোট অংশে ভাগ করুন :
আপনার দিনের কাজ গুলিকে ছোট ছোট অংশে ভাগ করুন, যেমন পরবর্তী দুই ঘন্টায় এই কাজ করব তারপর এই কাজটা শেষ করবো এইভাবে কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করে কাজ বা পড়াশোনা করুন। নিদৃষ্ট কর্মপরিকল্পনা কাজে বা পড়াশোনায় মনোযোগ বৃদ্ধি করতে খুবই সহযোগিতা করে।

উপযুক্ত সময় নির্ধারণ করুন :
সাধারনত আপনি দিনের শুরুতে কর্মশক্তিকে চাঙ্গা থাকবেন এবং দুপুরে খাবার পর আর সেই ভাবে কর্মচঞ্চল থাকেন না একটু আলসেমি চলে আসে। আবার ছাত্র দের ক্ষেত্রে কারো ভোরে ভালো পড়া হয় আবার কারো রাত ১১ টার পর খুব ভালো পড়া হয় এজন্য আপনি দিনের বিভিন্ন সময়ে কেমন বোধ করেন তা অনুভব করুন এবং সেই অনুসারে আপনার কাজের রুটিন তৈরি করুন এটিও আপনার মনোযোগ সহকারে কাজের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

কর্মক্ষেত্রে বিজি ট্যাগ ব্যবহার করুন :
আপনি যখন কোন কাজ মনোযোগ দিয়ে করছেন চাইছেন যে কেউ যেন কাজের মধ্যে কোন প্রকার অসুবিধা না করে সে ক্ষেত্রে আপনি ব্যস্ত আছেন এমন লেখা সামনে ঝুলিয়ে রাখতে পারেন। আপনার সহকর্মীদের সাথেও শেয়ার করতে পারেন যে আপনি ব্যস্ত আছেন এবং কেউ যেন আপনাকে বিরক্ত না করে।

মনসংযোগ নষ্টকারীদের থেকে দূরে থাকুন :
এখনকার সময়ে মোবাইল ফোন, সামাজিক নেটওয়ার্ক অ্যাপ্লিকেশন আপনার কাজ করার অনেক সময় নষ্ট করে এবং আপনার মনোযোগ নষ্টের কারণ হয়ে থাকে। তাই মনোযোগ সহকারে কোন কাজ বা পড়াশোনা করতে চাইলে আপনার ফোনটি নিঃশব্দ করুন এবং আপনার ইমেইল ইন্টারনেট ব্রাউজার এবং সামাজিক নেটওয়ার্ক অ্যাপ্লিকেশন বন্ধ করুন। আপনি যদি কম্পিউটারে কাজ করেন তবে সমস্ত অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ্লিকেশন বন্ধ করুন এবং বিভ্রান্তি কে কমিয়ে পূর্ণ স্ক্রিন এ কাজ করুন।

নির্দিষ্ট সময় পর পর বিরতি দেওয়া :
আপনার কাজটি করতে যদি দীর্ঘ সময় লাগে তাহলে কাজের মাঝে বিরতি নিতে পারেন। আপনি যদি অনেকক্ষণ বসে বসে কাজটি করতে থাকেন তাহলে একটু হেঁটে, একটু কিছু খেয়ে শরীরকে রিচার্জ করে আবার মনোযোগ সহকারে পূর্ণ উদ্যমে কাজ করতে পারেন।

পর্যাপ্ত ঘুমান :
পর্যাপ্ত ঘুম না হলে স্বাস্থ্যকে যেমন প্রভাবিত করে, তেমনি নেতিবাচকভাবে আপনার চিন্তাভাবনাকে প্রভাবিত করে এবং কর্মদক্ষতাকে বিনষ্ট করে। তাই মনোযোগ সহকারে কাজ করতে চাইলে পর্যাপ্ত ঘুমানো খুবই জরুরী।

Share