কফি খাওয়া বাচ্চাদের জন্য কতটা স্বাস্থ্যকর?

কফি খুবই সুস্বাদু হওয়ায় শিশুরা কফি খেতে পছন্দ করে। কিন্তু শিশুদের জন্য কফি স্বাস্থ্যকর নয়। কারণ কফিতে প্রচুর ক্যাফিন থাকে। এমনকি প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত কফি পান ঠিক নয়। অবশ্য শুধু কফিতে নয়, কোমল পানীয় ও কেকের মধ্যে কখনো কখনো ক্যাফেইন থাকে। শিশুদের শরীরের জন্য ক্যাফেইন উপকারী নয়- বিশেষজ্ঞরা এমনটাই বলেন।

ক্যাফেইন একরকম নেশার মতো। অত্যধিক ক্যাফেইন গ্রহণের করণে পাকস্থলীকে সমস্যা করে, হালকা মাথাব্যথা হয়, ঘুমের অসুবিধা করে, হৃদস্পন্দন বৃদ্ধি করে, মনোযোগের অসুবিধা হয়। শৈশব এবং কৈশোর হাড় মজবুত করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়। অত্যধিক ক্যাফিন ক্যালসিয়াম শোষণ কমিয়ে দেয়, যা শিশুর সঠিক বৃদ্ধিকে প্রভাবিত করে।

এছাড়া কফিতে প্রচুর পরিমাণে চিনি যোগ করা হয়। ফলে ওজন বৃদ্ধি পায় এবং দাঁত নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

বাচ্চাদের কি কফি খাওয়া উচিত?

ছোট বাচ্চাদের কফি না দেওয়াই ভালো। কানাডায় ক্যাফিনের গ্রহণের উপর কিছু নিয়ম রয়েছে। কোন বয়সে কতটুকু কফি পান করা যাবে নিচে দেওয়া হলো –

  • ৪ থেকে ৬ বছর বয়সী আধা কাপেরও কম কফি পান করতে হবে।
  • ৭ থেকে ৯ বছর বয়সী ৩৫৫ মিলি
  • ১০ থেকে ১২ বছর বয়সী ১ কাপের কম কফি

প্রাপ্তবয়স্করা দৈনিক সর্বোচ্চ ৪০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত গ্রহণ করতে পারে। প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য বেশিরভাগ সুপারিশ হল প্রতিদিন ২০০ থেকে ৩০০ মিলিগ্রাম ক্যাফিন রাখা।